জাপানে কানামার লিঙ্গ উৎসব উদযাপন। ছবি : সংগৃহীত

দেশ, জাতি, ধর্ম, সংস্কৃতির বৈচিত্র্যের কারণে আমরা সারা বিশ্বে বিভিন্ন রকম উৎসব উদযাপন করতে দেখি। বৈচিত্র, অনন্যতায় প্রত্যেকটি উৎসবই আলাদা। ঠিক এমই এক উৎসবের নাম হচ্ছে কানামারা মাতসুরি। জাপানিরা প্রতি বসন্তে এই উৎসবের আয়োজন করেন, যেখানে তরুণ থেকে বৃদ্ধ, কিশোর থেকে কিশোরী সকল শ্রেণি পেশার মানুষ হাজির হয়। বিস্ময়কর বিষয় হচ্ছে কানামারা মাতসুরি উৎসবটি উদযাপন পুরুষাঙ্গ প্রদর্শনীর মাধ্যমে।

পুরুষাঙ্গ সদৃশ প্রতিকৃতি নিয়ে দ্বৈত লিঙ্গ বা হিজড়া সম্প্রদায়ের লোকেরা প্যারেড করে, এটির নাম কুইন এলিজাবেথ। ছবি : সংগৃহীত

আমরা হিন্দু ধর্মে ‘শিবলিঙ্গ’ পূজার রীতি দেখে অভ্যস্ত। তবে তারও বেশ কিছু ধর্মীয় রীতিনীতি রয়েছে। হিন্দু ধর্মে কিন্তু শিবের পূজা করা সরাসরি লিঙ্গ পূজার কথা নির্দেশ করে না। শিব শব্দের মানে হচ্ছে মঙ্গল বা ঈশ্বর আর ব্যাকরণে লিঙ্গ অর্থ প্রতীক বোঝায়। অর্থাৎ শিবলিঙ্গ হচ্ছে ‘মঙ্গলের প্রতীক’ যার মাধ্যমে হিন্দুরা নিরাকার মঙ্গলময় ঈশ্বরের প্রতীকি উপাসনা করে। কিন্তু জাপানের ‘কানামারা মাতসুরি’ উৎসবটি এক্ষেত্রে একদমই ভিন্ন রকম।

এই উৎসবে কারো হাতে পুরুষাঙ্গের মতো দেখতে আইসক্রিম, কারো হাতে পুরুষাঙ্গ সদৃশ চকলেট। কেউ কেউ বড় আকৃতির প্লাস্টিকের পুরুষাঙ্গ বানিয়ে রাস্তাজুড়ে মিছিল করেন। সাধারণত প্রতি বছর এপ্রিলের প্রথম রবিবার জাপানের কাওয়াসাকি শহরে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।

Image result for Kanamara Penis Festival
উৎসবে পাওয়া যায় পুরুষাঙ্গ সদৃশ ললিপপ, চকোলেট এবং আইসক্রিম। ছবি : সংগৃহীত

জাপানের সিন্টো ধর্মের লোকেরা পালন করে এই উৎসব। সিন্টো ধর্মাবলম্বীদের মতে ‘পুরুষাঙ্গ উৎসব’ সমাজের খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই সময় সকলে অন্তত একবার যৌনমিলনে লিপ্ত হোন। বছরের এই সময়টাতে অবিবাহিতরাও উপভোগ করেন যৌনতা। বার্ষিক এই উৎসবকে সম্মান জানাতে যৌনকর্মীরাও বিনামূল্যে সেবা দিয়ে থাকেন।

কানামারা মাতসুরি উৎসবে লিঙ্গ সদৃশ মুকুট। ছবি : সংগৃহীত

খ্রিস্টীয় সপ্তদশ শতকে বিচিত্র এই উৎসবের প্রচলন হয় বলে অনুমান করা হয়। সেই সময় বসন্তের শেষে যৌনকর্মীরা বিশাল পুরুষাঙ্গের রেপ্লিকা নিয়ে কাওয়াসাকির কানামারা মাঠে প্রার্থনা করতে যেতেন যৌন সংক্রমণ বা যৌন রোগের হাত থেকে বাঁচতে। সেই থেকেই এই উৎসবের উৎপত্তি।

Kanamara Penis Festival in Kawasaki, Kanagawa
উৎসবে পেনিস আকৃতির আইসক্রিম, ললিপপ, মেয়েদের কানের দুল পাওয়া যায়। ছবি : সংগৃহীত

প্রতিবারের মতো এবছরও লিঙ্গের প্রজনন ক্ষমতাকে উদযাপনের জন্যে কানামারা মাতসুরি উৎসব পালিত হয়। উৎসবে পেনিস আকৃতির আইসক্রিম, ললিপপ, মেয়েদের কানের দুল পাওয়া যায়। এবছর জাপানের দক্ষিন টোকিও শহরে প্রায় ৩০০০০ লোকের সমাগমে এই উৎসব পালন করা হয়।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/