গ্রেফতার মেয়র পুত্র।

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার জাজিরা পৌরসভার মেয়র ইউনুস বেপারির ছেলে মাসুদ বেপারি বিরুদ্ধে দ্বাদশ শ্রেণীর এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

এঘটনায় মাসুদ বেপারিকে আসামী করে মামলা করেছে ভুক্তভোগী মেয়েটি। এরপরই মাসুদকে আটক করেছে জাজিরা থানা পুলিশ।

পুলিশ জানায়, অভিযুক্ত মাসুদ ভুক্তোভোগী মেয়েটির সম্পর্কে বোন জামাই হয়। ঘটনার দিন সন্ধ্যায় মেয়েটিকে ফোন দেয় মাসুদ। ওই মেয়েটিকে তার বোন দেখা করতে বলেছে বলে সে ফোনে জানায়। মেয়েটি ফোন পেয়ে ছুটে যায় তার বোনের বাড়ি। বাড়িতে ঢুকে বোনকে না দেখে সে চলে আসতে চায় কিন্তু মাসুদ তাকে জোর করে ধর্ষণ করে। মেয়েটি চিৎকার করলে তার গলা চেপে ধরে।

এক পর্যায়ে সে বাঁচার জন্য দরজা খুলে দৌড়ে পাশের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। পরে মেয়েটির মা ও আত্মীয় স্বজন কারে চিকিৎসা শেষে বাড়ি নিয়ে যায়। বিষয়টি জানাজানি হলে শনিবার গভীর রাতে মাসুদকে আটক করে পুলিশ।

প্রভাবশালী মেয়র পরিবারের ভয়ে রাতেই ঘরে তালা দিয়ে পাশের ইউনিয়নে এক আত্মীয়ের বাড়ি আশ্রয় নেয় পরিবারটি। পুলিশ অনেক খোঁজাখুজির পর না পেয়ে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সহায়তা চায়। পরে চেয়ারম্যান নিরাপত্তার আশ্বাস দিলে মেয়ের পরিবার থানায় এসে মামলা দায়ের করে।

মেয়েটির বাবা বলেন, প্রতারনা করে আমার মেয়েকে ডেকে নিয়ে মাসুদ মেয়ের সর্বনাশ করেছে। আল্লায় জীবন বাঁচাইছে। আমি ওই ছেলের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরুল হাসান বলেন, ভুক্তোভোগী মেয়েটির লিখিত অভিযোগ প্রেক্ষিতে একটি ধর্ষণ মামলা নেয়া হয়েছে। আসামীকে আটক করা হয়েছে।

আজকের পত্রিকা/এমএআরএস