বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা নিরসনে কেসিসি’র কঞ্জারভেন্সী বিভাগের মধ্যে এক সমন্বয় সভা। ছবি : কেসিসি

বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা নিরসন এবং পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন সুন্দর নগরী গড়ে তোলার লক্ষ্যে খুলনা মহানগরীতে কর্মরত এনজিওসমূহ এবং কেসিসি’র কঞ্জারভেন্সী বিভাগের মধ্যে এক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। ২৭ ফেব্রুয়ারি বুধবার বিকেলে নগর ভবনের শহীদ আলতাফ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

সভায় বর্ষা মৌসুমে দ্রুত পানি নিষ্কাশনে প্রতিবন্ধকতা চিহ্নিতকরণ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও অফিস-আদালতে ময়লা রাখার প্লাস্টিক বিন বিতরণ, ড্রেনে সেফটিক ট্যাঙ্কির সংযোগ বন্ধে ২ মাস সময় নির্ধারণপূর্বক বাড়ির মালিকদের নোটিশ প্রদান এবং নগরীতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বিষয়ে অভ্যাস গড়ে তোলার লক্ষ্যে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সভাপতি বক্তৃতায় সিটি মেয়র নগরীতে পরিচ্ছন্ন কাজে নিয়োজিত এনজিওসমূহ’কে কেসিসি’র কঞ্জারভেন্সী বিভাগের সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, এ কাজে নিয়োজিত দায়িত্বশীল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আরো নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। পরিচ্ছন্ন নগরী গড়ে তোলার বিষয়ে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না এবং সংশ্লিষ্টদের কোনোরূপ গাফিলতি পেলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি সকলকে সতর্ক করে দেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন কেসিসি’র প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মো. আব্দুর রহমান, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা প্রকৌশলী মো. আব্দুল আজিজ, ডা. এম এ আলী, কেসিসি’র সহকারী কঞ্জারভেন্সী অফিসার নুরুন্নাহার এ্যানী, মো. আব্দুর রকিব, মো. জিয়াউর রহমান, পার্টনার এনজিও মুক্তির আলো’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিয়ামুল করিম, প্রদীপনের প্রতিনিধি শেখ বজলুর রহমান।

আরও উপস্থিত ছিলেন সিয়ামের নির্বাহী পরিচালক এ্যাড. মো. মাসুম বিল্লাহ, এসএনভি’র প্রতিনিধি এস এম হুসাইন ও মো. এরফান আহমেদ খান, ব্রিকের প্রতিনিধি অমিত লস্কর, ব্রাকের প্রতিনিধি শাহীন শেখ, সিএসএসের আলী আকবর, জেজেএসের প্রতিনিধি নব কুমার সাহা, নবলোকের প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ আল মামুন, নবারুণ সংসদের প্রতিনিধি ফরহাদ নেওয়াজ টিপু, ক্লানশিপ অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধি অনিমা মণ্ডল, স্বদিচ্ছা মানবকল্যাণ সংস্থার প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ হেল বাকী, প্রত্যয়নের প্রতিনিধি তানভীর হোসেনসহ কেসিসি’র সিএসআই ও কঞ্জারভেন্সী সুপারভাইজাররা।

আজকের পত্রিকা/আ.স্ব/জেবি