স্বাভাবিক জলবায়ুর পরিবর্তনের জন্য নবায়ন অযোগ্য ময়লা আবর্জনা, প্লাস্টিক ও পলিথিনের ব্যবহার, কলকারখানার বিষাক্ত ধোঁয়া ও রাসায়নিক পদার্থ প্রধান ভূমিকা পালন করছে। মানুষের অসতর্কতার জন্য দিন দিন এর প্রভাব বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এতে দেশের কৃষি ও কৃষি সম্পদ সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করলেও খাদ্য নিরাপত্তা এখনো হুমকির মুখে রয়েছে। তাই জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় সকলকে সচেতন হতে হবে।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে বাংলাদেশ কৃষি বিশ^বিদ্যালয়ের (বাকৃবি) ইন্টারডিসিপ্লিনারি ইনস্টিটিউট ফর ফুড সিকিউরিটি (আইআইএফএস)
আয়োজিত ‘ট্রেনিং অন এগ্রিকালচার ইন দ্যা চেঞ্জিং ক্লাইমেট’ শীর্ষক ওই প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য
অধ্যাপক ড. মো. জসিমউদ্দিন খান।

সাংবাদিকতায় দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষে ৮ দিনব্যাপী ওই প্রশিক্ষণে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও অনলাইন পত্রিকায় বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে কর্মরত ১৬ জন সাংবাদিক
অংশগ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণে কোর্স কো-অর্ডিনেটর হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করবেন প্রফেসর ড. হারুনুর রশীদ।

আইআইএফএসের সহযোগী পরিচালক প্রফেসর ড. হারুনুর রশীদেও সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড.
মো. জসিমউদ্দিন খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ^বিদ্যালয় রিসার্চ সিস্টেমের পরিচালক (বাউরেস) অধ্যাপক ড. মো. আবু হাদী নূর আলী খান, প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. আজহারুল হক এবং ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শেখ মহিউদ্দিন আহমেদ।

অনুষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষকতা করেন আইআইএফএসের পরিচালক অধ্যাপক ড. এ. এস. মাহফুজুল বারি।

এতে সঞ্চালনা করেন বাকৃবিসাসের সহ-সভাপতি আবদুল আউয়াল মিয়া শেখ।

-তানিউর করিম জীম