জবির সংস্কারকৃত ক্যাফিটিরিয়ার উদ্বোধন করলেন উপাচার্য
জবির সংস্কারকৃত ক্যাফিটিরিয়ার উদ্বোধন করলেন উপাচার্য

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) অবকাশ ভবনে অবস্থিত কেন্দ্রীয় ক্যাফিটিয়ার উদ্বোধন করেছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান।

২৮ জুলাই দুপুর সাড়ে ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয় ট্রেজারার অধ্যাপক সেলিম ভূঁইয়াকে সাথে নিয়ে উপাচার্য সংস্কারকৃত ক্যাফিটিরিয়া উদ্বোধন করেন। এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে আমরা ক্যাফিটিরিয়ার সংস্কার করি। তবে এর রক্ষণাবেক্ষনের দ্বায়িত্ব শিক্ষার্থীদেরই নিতে হবে।

এখন থেকে কেউ যেনো ফাঁউ না খায় সে বিষয়েও কথা বলেন তিনি। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সামান্য কয়েক টাকা ফাঁউ খায় এটা শুনতেও খারাপ লাগে। তাই আমরা আগামী মাস থেকেই ‘স্টুডেন্ট সাপোর্ট সিস্টেম’ চালু করব। যাতে প্রকৃত অসচ্ছল ৮০-১০০ জন শিক্ষার্থীর খাবারের ব্যবস্থা করা হয়। এর পরেও যেনো কেউ বিনা টাকায় না খায় সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে।

এসময় তিনি মাননীয় ট্রেজারার স্যার সব নিজ হাতে করেছেন বলে তাকে ধন্যবাদ জানান।

ট্রেজারার অধ্যাপক সেলিম ভূঁইয়া বলেন, আমাদের ক্যাফেটেরিয়া হবে ডে নাইট ক্যাফেটেরিয়া। সপ্তাহে সাত দিনই খোলা থাকবে এটি। আমরা ৩টি বিষয় মাথায় রেখে ক্যাফেটেরিয়াটি সাজিয়েছি। আমাদের জাতীয় চেতনা বোধ, মুক্তিযুদ্ধে ও নৈতিক মূল্যবোধ। যা আচরণ কে নিয়ন্ত্রন করবে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ক্যাফেটেরিয়ার ভেতরে নতুন করে পরিস্কার করা হয়েছে। দেওয়ালে চড়েছে নতুন রঙ। এছাড়াও দেয়ালে লাগানো হয়ে গেছে নতুন টাইলস। পুরো ক্যান্টিনে প্রায় ৮০ জন বসতে পারবে। সংযোজিত হয়েছে নতুন ফ্যান, টিভি, ভেসিন, পানীয় ফিল্টার। খাবারের দাম কিছুটা কমলেও বাড়ানো হয়েছে আইটেম।

সকালের আইটেমে সংযুক্ত হয়েছে রুটি সহ সকালের যাবতীয় নাস্তা। আগে দুপুরে খিচুরি-পোলাওয়ের ব্যবস্থা থাকলেও ছিলোনা ভাতের ব্যবস্থা। এখন ভাত-ডাল ফ্রি সহ মাছ-মুরগী খেতে পারবেন দুপুরের আইটেমে।

ক্যাফেটেরিয়ায় বসানো হয়েছে বিশুদ্ধ পানির লাইন। এছাড়াও ক্যাফেটেরিয়ার উপর বাড়তি চাপ কমাতে ক্যাফেটেরিয়ার বাহিরে বিশুদ্ধ খাবার পানির বেশ কয়েকটি বেসিন লাগানো হয়েছে।

মিজানুর রহমান/জবি