গাজীপুরের শ্রীপুরে জন্মদিনের কথা বলে এক কিশোরী (১৫)কে এনার্জি ড্রিংক এর সাথে নেশা দ্রব্য খাওয়াইয়ে গণধর্ষণের ঘটনায় ৪ বন্ধুকে আটক করেছে র‌্যাব ।

গত ১৫ জানুয়ারি গণধর্ষণের পর অন্যদের কাছে প্রকাশ করলে ওই কিশোরীকে বিভিন্ন ভাবে ভয়-ভিতি প্রদর্শন করে এবং জীবন নাশের হুমকি দেয় গণধর্ষণকারীরা ।

এঘটনায় কিশোরীর মা বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন ।

পরে গত রাত সাড়ে ১০টার দিকে র‌্যাব-১ গাজীপুরের স্পেশালাইজড্ কোম্পানী পোড়াবাড়ী ক্যাম্প গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গাজীপুর মহানগরীর রাজবাড়ী এলাকা থেকে অভিযুক্ত কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর থানার নৈয়পুরা এলাকার সোহরাব উদ্দিনের ছেলে মোঃ শরীফ হোসেন(১৮)কে করে র‌্যাব ।

তার দেয়া তথ্যমতে ময়মনসিংহ জেলার বিভিন্ন এলাকা হতে ময়মনসিংহের ইশ্বরগঞ্জ থানার উজান চন্দ্রপাড়া এলাকার লিটন মিয়ার ছেলে ইমরান হাসান সূজন(১৯),গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার নয়নপুর এলাকার সাবাজ উদ্দিনের ছেলে শরিফ উদ্দিন মোল্লা (২০) এবংআটক করা হয়। তাদের দেহ তল্লাশী করে ০৪টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব-১ গাজীপুরের স্পেশালাইজড কোম্পানী পোড়াবাড়ী ক্যাম্প এর কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে জানান, জন্মদিন অনুষ্ঠানের পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ভিকটিমকে এর্নাজি ড্রিংক এর মাধ্যমে নেশা দ্রব্য মিশ্রিয়ে পান করিয়ে অজ্ঞান করে একটি ঝোপের ভিতর নিয়ে হাত, পা, মুখমন্ডল বেঁধে তাকে পালাক্রমে গণধর্ষণ করে ।

মোবাইল ফোনে ধর্ষণের ভিডিও ধারন করে তার ফেসবুক আইডিতে আপলোড করে বলে গ্রেফতারকৃত আসামীরা স্বীকার করে।

-শহীদুল ইসলাম