আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী। ছবি : সংগৃহীত

জামায়াত-বিএনপি সমান মোনাফেক। এরা ধর্মকে পুঁজি করে ধর্মের নামে অর্ধম করে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী। ২৩ মে বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির আয়োজনে ‘নারীর অগ্রযাত্রায় সমৃদ্ধ বাংলাদেশ: শেখ হাসিনার অবদান’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

জামায়াত-বিএনপি ধর্মকে ব্যবহার করে বলে মন্তব্য করে মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘নারী নেতৃত্ব হারাম, পাশে বসলে আরাম। এটি হচ্ছে জামাতের একটি চেহারা। তাদের আরেকটি চেহারা আমরা ২০১৪ সালে দেখেছি, ২০১৫ সালে দেখেছি অগ্নিসন্ত্রাস। শবেবরাতের রাতে বাসে করে বাবা-মা-মেয়ে ফিরছিলেন, তাদের পেট্রোলবোমা ছুড়ে মেরে ফেলা হলো। এর নাম ইসলাম! এর নাম বিএনপির ধর্ম নিয়ে রাজনীতি। জঙ্গিদের সঙ্গে নিয়ে বিএনপি-জামায়াত আমাদের অগ্রযাত্রা নস্যাৎ করতে চায়।’

মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘জঙ্গিবাদের সহায়ক শক্তি জামায়াত-বিএনপি। এরা ধর্মকে ব্যবহার করে অধর্মের কাজ করে। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে জামায়াত কৃষি, শিল্পকে ধ্বংস করেছিল, জঙ্গিবাদের সৃষ্টি করেছিল। শেখ হাসিনা এই জঙ্গিবাদকে সাহসিকতার সঙ্গে মোকাবেলা করেছেন। তারপরও এদের ষড়যন্ত্র থেমে নেই। এদের ব্যাপারে সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।’

আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘আজকের দিনে শেখ হাসিনার সাফল্যের পাশাপাশি সমাজের অন্ধত্বের বিষয়ে জনগণকে, বিশেষ করে নারী সমাজকে সচেতন থাকতে হবে।’

আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক সুলতানা শফির সভাপতিত্বে আলোচনা অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পড়ে শোনান অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন। আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সভাপতি ড. সুলতানা সফির সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি প্রমুখ। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক প্রফেসর ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন।

আজকের পত্রিকা/রাজনীতি/আ.স্ব/জেবি