যুবলীগ নেতা শামীম ও তার দেহরক্ষীরা। ছবি: সংগৃহীত

‘ক্যাসিনো সম্রাট’ খ্যাত যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন সম্রাটসহ তার সাঙ্গোপাঙ্গরা এখন খাদের কিনারে। কেউ ধরা পড়েছে, কেউ আটকের অপেক্ষায়।

ক্যাসিনো ব্যবসায়ী প্রভাবশালী যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদকে গত বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় গুলশান-২–এর নিজ বাসা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। ওইদিনই মিডিয়ার মাধ্যমে র‌্যাব জানিয়ে দেয়, অপরাধী যে দলেরই হোক না কেন? যত প্রভাবশালী হোক না কেন? তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

এরই ধারাবাহিকতায় ২০ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর নিকেতন থেকে ছয় দেহরক্ষীসহ যুবলীগ নেতা জি কে শামীম আটক করা হয়।

তবে এখনও পর্যন্ত অভিযানের বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি না র‌্যাব।

বিস্তাুরিত আসছে….