কমল দাশ
চট্টগ্রাম ব্যুরো

দখল আর দূষণে ছোট হয়ে আসছে চাত্তাই খাল : ছবি : কমল দাশ

দখল-দূষণে ছোট হয়ে আসছে চট্টগ্রামের দুঃখ খ্যাত চাক্তাই খালের চারপাশ। একসময় এ খাল দিয়ে সাম্পানে ব্যবসা-বাণিজ্য চলতো, সেখানে আজ ময়লা-আবর্জনার ভাগার। খালের তীর ঘেঁষে গড়ে উঠেছে ভবন ও বস্তি। দখলের উৎসবে নেমেছে সবাই। যে যার মত পারছে, দখলে নিচ্ছে চাক্তাই খালের চারপাশ। দূষণ-দখলে ছোট হয়ে আসছে ঐতিহ্যবাহী খালটি।

ব্যবসায়ীরা জানান, কর্ণফুলী হয়ে চাক্তাই খালে নৌকায় মালামাল পৌঁছে দেয়া হতো খাতুনগঞ্জ থেকে বহদ্দারহাট পর্যন্ত। এখন সেটা কেবলই স্মৃতি। নগরে জলাবদ্ধতার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ভরাট হয়ে যাওয়া খালটি। চাক্তাই খাল পানি নিষ্কাশনের সবচেয়ে বড় পথ। এ খাল দিয়েই পানি কর্ণফুলী নদীতে গিয়ে পড়ে।

দখল আর দূষণে ছোট হয়ে আসছে চাত্তাই খাল : ছবি : কমল দাশ

কিন্তু বর্তমানে পানি নিষ্কাশন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।এছাড়া খালের মোহনা থেকে ধনিরপুল এলাকা পর্যন্ত জমে আছে আবর্জনা, বাধাগ্রস্ত হচ্ছে পানি প্রবাহ।ভরাট হয়ে যাওয়ায় খালটি নাব্যতা হারিয়ে মৃতপ্রায় অবস্থায় অতীতের চিহ্ন বয়ে বেড়াচ্ছে।

আবর্জনা ফেলার কারণে দুই পাড় ভরাট হয়ে কমে গেছে খালের প্রশস্ততা। চাক্তাই খালের পাড় দখল করে গড়ে উঠেছে ছোট ছোট দোকানপাট। দোকানের কারণে খাল ভরাট হওয়ার পাশাপাশি নিচে জমছে ময়লা-আবর্জনা। দেখা গেছে, খালের পানির রঙ কালো। এতে ভাসছে পলিথিন, আবর্জনা। খালের ভেতরে মাটির স্তূপ জমে আছে।

দখল আর দূষণে ছোট হয়ে আসছে চাত্তাই খাল : ছবি : কমল দাশ

বহদ্দারহাট মোড় থেকে প্রায় ছয় কিলোমিটার পথ ঘুরে খালটি নগরের চাক্তাই এলাকায় কর্ণফুলী নদীতে মিশেছে।চাক্তাই খাল এখন ‘চট্টগ্রামের দুঃখ’ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

আজকের পত্রিকা/এমএআরএস