নোয়াখালীর সেনবাগে ছেলে ধরা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারীকে (৪৫) গণধোলাই দিয়েছে স্থানীয়রা।

শনিবার মধ্যম মোহাম্মদপুর ভূঁঞার দীঘি দৌলতবাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সেনবাগ থানা পুলিশ ওই মহিলাকে উদ্ধার করতে গেলে বিক্ষুব্ধ লোকজন পুলিশের ভাড়া করা একটিমাইক্রো ভাঙচুর করেছে।

স্থানীয় লোকজনজানান, দৌলতবাড়ীর মোয়াজ্জেম হোসেনের বসতঘরে তার শাশুড়ির উপস্থিতিতে নয় মাস বয়সের শিশু রিয়াদ খেলছিল। এমন সময় মানসিক ভারসাম্যহীন ওই মহিলা ঘরে প্রবেশ করে শিশুটিকে কোলে নেয়।

এ সময় তিনি ছেলে ধরা সন্দেহে চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন জড়ো হয়ে মহিলাকে বেদম মারধর করে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মহিলাকে উদ্ধার করে গাড়িতে উঠানোর সময় বিক্ষুব্দরা মহিলাকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে পুলিশের ভাড়া করা গাড়ি ভাঙচুর করে। সেনবাগ থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, ভারসাম্যহীন মহিলাকে উদ্ধার করা হয়েছে। সে নাম ঠিকানা কিছুই বলতে পারছে না। বর্তমানে সে থানায় রয়েছেন।

আজকের পাত্রিকা/আরকে