লালমনিরহাট পুলিশ সুপারের সংবাদ সম্মেলন।

সারাদেশের লালমনিরহাটেও ছেলেধরা সন্দেহে নিরিহ লোকদের গণপিটুনি দেয়া হচ্ছে। ছেলে ধরা একটি গুজব বলে লালমনিরহাটে সংবাদ সম্মেলন করেছে পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক পিপিএম।

সোমবার (২২ জুলাই) বিকেলে পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ সংবাদ সম্মেলন করেন পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক পিপিএম।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার নিখিত বক্তব্যে বলেন, ছেলে ধরা একটি গুজব মাত্র, কাউকে সন্দেহজনক মনে হলে পুলিশে খবর দিন, আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না।

পদ্মা সেতু নির্মাণে মানুষের মাথা লাগবে বলে একটি গুজব ছড়ানো হচ্ছে।

বিভিন্ন স্থানে গুজব ছড়িয়ে গণপিটুনিতে হত্যার মাধ্যমে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করার অপচেষ্টা চলছে। এটি শুধুই একটি গুজব মাত্র, এ নিয়ে বিভ্রান্ত হবেন না। গুজব ছড়িয়ে এবং গণপিটুনি দিয়ে মৃত্যু ঘটানো ফৌজদারী অপরাধ। গণপিটুনির ঘটনায় জড়িতদেও গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে।

গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে ছেলে ধরা সন্দেহে কাউকে গণপিটুনি দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না। কাউকে ছেলে ধরা সন্দেহ হলে তাৎক্ষনিক পুলিশকে পুলিশকে সংবাদ এবং গণপিটুনি না দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিন। আসুন আমরা সকলে মিলে সচেতন হই। গুজব ছড়ানো ও গুজবে কোন কান দেওয়া থেকে সবাইকে বিরত থাকার আহবান জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ সার্কেল) মোঃ হাসান ইকবাল চৌধূরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ইন সার্ভিস) শহিদ সোহরাওয়াদি, সহকারী পুলিশ সুপার (সদর) আমিনুল ইসলাম, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহফুজ আলম, ট্রাফিক পুলিশের টিআই তরিকুল ইসলাম, গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ইনচার্জ (ওসি) মকবুল কোসেন, সিনিয়র সাংবাদিক গেরিলা লিডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম কানাসহ জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রিক মিডিয়ার সকল সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, পুলিশ সুপার (সদ্য পদোন্নতি প্রাপ্ত) এনএম নাসিরুদ্দিন।

জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না/লালমনিরহাট