পুত্রবধূর রেখে যাওয়া বৃদ্ধা। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুর বাইপাস এলাকায় আন্ডারপাসের নিচে একজন বৃদ্ধাকে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। মাঝে মাঝে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে তাকে শুয়ে থাকতে দেখা যায়। প্রায় ৬০ বছর হওয়াতে তিনি একা চলতে পারেন না এমনটি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

বিভিন্ন মানুষকে প্রশ্ন করে জানা গেছে, প্রথমে মালেকা নামের এক মহিলা তাকে দেখাশোনা করতো। খোঁজ নিয়ে মালেকা বেগমকে পাওয়া গেলে তিনি বলেন, ৬ মাস পূর্বে উপজেলার বাড়ই খাল ব্রিজের কাছ থেকে ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে কয়েকমাস নিজের কাছে রেখে বৃদ্ধার দেখাশোনা করেছেন।

তবে বাড়ির মালিক ঝুকি মনে করায় বৃদ্ধার দেখাশোনার দায়িত্ব ছেড়ে দিতে হয় তাকে। তার কাছে থাকাকালিন তিনি বৃদ্ধার কাছ থেকে জেনেছেন তার পুত্রবধূ তাকে রাস্তায় ফেলে গেছে। তার একটি মাত্র ছেলে সে জীবিত নেই বলেও তার কাছ থেকে জানা গেছে।

বর্তমানে তার ঠিকানা ঢাকা-টাঙ্গাইল মহসড়কের মির্জাপুর বাইপাস এলাকার আন্ডারপাসের নিচে। ১৮ জুলাই বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টায় সেই বৃদ্ধাকে খাইয়ে দিতে দেখা যায় সেখানে অবস্থান করা একজন পাগলকে। বৃদ্ধা বর্তমানে কোন কথা বলতে পারেন না, শারীরিক অবস্থাও খুব মুমূর্ষ।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবদুল মালেক’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন, এর আগে ওই বৃদ্ধাকে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করেছিলাম। হাসপাতালে কয়েক মাস চিকিৎসা করানো হয়েছে তাকে। তবে তার বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে আমি অবগত নই তবে খুব দ্রুত বৃদ্ধার বিষয়ে স্থায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আজকের পত্রিকা/এমইউ