পৃথিবীর অনেক দেশের সৈন্যদের মধ্যে স্থূলতা, বা অলস জীবন-যাপনজনিত সমস্যা তৈরি হয়েছে। ছবি : সংগৃহীত

সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, পৃথিবীর অনেক দেশের সৈন্যদের মধ্যে স্থূলতা বা অলস জীবনযাপনজনিত সমস্যা তৈরি হয়েছে। চীনা সেনাবাহিনীর নিজস্ব পত্রিকা ‘পিপলস লিবারেশন আর্মি ডেইলি’র এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, চীনা সৈন্যদের নাকি প্রধান সমস্যা হচ্ছে ফাস্ট ফুড খাওয়া এবং হস্তমৈথুন।

কিছু সৈন্য ৫ কিলোমিটারের দূরপাল্লার দৌড় শেষ করতে পারেনি। ছবি : সংগৃহীত

ওই পত্রিকার এক সম্পাদকীয়তে লেখা হয়েছে, নিম্নমানের খাওয়া, দীর্ঘ সময় কমপিউটার গেম নিয়ে বসে থাকা, অতিমাত্রায় হস্তমৈথুন করা, এবং শারীরিক পরিশ্রমের অভাব তরুণ সৈন্যদের ফিটনেস টেস্টে অনুত্তীর্ণ হবার সংখ্যা বেড়ে যাবার কারণ। চীনা সেনাবাহিনীতে নতুন প্রার্থীদের ২০ শতাংশ ওজন পরীক্ষায় ফেল করেছে। কিছু সৈন্য ৫ কিলোমিটারের দূরপাল্লার দৌড়ও শেষ করতে পারেনি।

চীন ও আমেরিকার পাশাপাশি ইরানে ১৩ শতাংশ সৈন্য ‘মোটা’। ছবি : সংগৃহীত

শুধু চীন নয়, আমেরিকান সৈন্যদের ৬০ শতাংশই নাকি ‘অতিরিক্ত মোটা’। ‘র‍্যান্ড কর্পোরেশন’ নামে একটি আন্তর্জাতিক থিংক ট্যাংক তাদের এক রিপোর্টে এই মত প্রকাশ করেছে। র‍্যান্ড কর্পোরেশনের হিসেবে দেখা যাচ্ছে, আমেরিকান সৈন্যদের প্রায় ৬৬ শতাংশের ওজন মাত্রাতিরিক্ত রকমের বেশি। আমেরিকান সেনাবাহিনীতে যারা নিয়োগ পরীক্ষায় বাতিল হন, তাদের এক-তৃতীয়াংশই বাদ পড়ে অতিরিক্ত মোটা হবার কারণে।

এক অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর জেনারেল জেফরি ফিলিপস লিখেছেন, স্থূলতা সংক্রান্ত স্বাস্থ্য সমস্যার চিকিৎসার জন্য কিংবা বাদ পড়াদের শূন্যস্থান পূরণ করতে মার্কিন সামরিক বাহিনীকে প্রতি বছর দেড়শ কোটি ডলার খরচ করতে হয়।

স্থূলতা সংক্রান্ত স্বাস্থ্য সমস্যার চিকিৎসার জন্য কিংবা বাদ-পড়াদের শূন্যস্থান পূরণ করতে মার্কিন সামরিক বাহিনীকে প্রতি বছর দেড়শ কোটি ডলার খরচ করতে হয়। ছবি : সংগৃহীত

চীন ও আমেরিকার পাশাপাশি ইরানে ১৩ শতাংশ সৈন্য ‘মোটা’। ‘গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ার ডট অর্গ’ নামে একটি প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ ওয়েবসাইট অনুযায়ী, ইরানের পাঁচ লাখ সক্রিয় সেনা সদস্য রয়েছে। বিএমসি পাবলিক হেলথ নামে এক জার্নালের নিবন্ধে বলা হয়েছে, দেশটিতে ৪১ শতাংশ সেনার ওজন আদর্শ মাত্রার চেয়ে বেশি এবং ১৩ শতাংশ রীতিমত স্থূলকায়।

ভারতে ২০১৬ সালের এক জরিপে বলা হয় ভারতের এক তৃতীয়াংশ সেনাই মোটা। সে সময় মোটা সৈন্য ও অফিসারদের পদোন্নতি এবং বিদেশে পোস্টিং নিষিদ্ধ করা হয়। স্পেন, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং মেক্সিকোর সেনাবাহিনীতেও সৈন্যদের স্থূলতার সমস্যা মোকাবিলা করতে বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আজকের পত্রিকা/বিএফকে/সিফাত