পাবনায় মানববন্ধন।

পাবনার চাটমোহর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মিজানুর রহমানের নানা অনিয়ম, দুর্নীতি’র প্রতিবাদে তার অপসারণ ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৬ মে রবিবার সকাল ১১টায় ওই কলেজের শিক্ষকদের আয়োজনে কলেজ গেটে এলাকায় ঘন্টাব্যাপি এ মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, ব্যবসায়ী, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সাংবাদিক ও সাধারণ মানুষ একাত্মতা ঘোষণা করে অংশ নেন।

চাটমোহর সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের সহকারি অধ্যাপক কামাল মোস্তফার সভাপতিত্বে মানববন্ধনকালে বক্তব্য দেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল হামিদ মাস্টার, ভাইস চেয়ারম্যান ইসাহাক আলী মানিক, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফিরোজা পারভীন, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ ইদ্রিস আলী, প্রভাষক লিলি আক্তার, প্রেসক্লাবের সভাপতি রকিবুর রহমান টুকুন, ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি কে এম বেলাল হোসেন স্বপন, প্রাক্তন ছাত্র মোজাম্মেল হক, অভিভাবক রিপন হোসেন ও উপজেলা ছাত্রলীগের সেক্রেটারী রাজিব কুমার বিশ্বাস প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, কলেজ অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান রাতের আঁধারে নিয়োগ বাণ্যিজ্য করে তাদের এমপিওভুক্তির অপচেষ্টা করছেন। সরকারি হওয়ার পর শিক্ষকদের ফাইলে ভুল তথ্য প্রদান করেছেন। তাই ঐতিহ্যবাহী এই কলেজকে রক্ষা করতে হলে দুর্নীতিবাজ অধ্যক্ষ মিজানুর রহমানকে অবিলম্বে অপসারণ করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। তা না হলে চাটমোহরবাসী তার বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্দোলন শুরু করবে বলে হুশিয়ারী দেন বক্তারা।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চেয়ে অধ্যক্ষ মো. মিজানুর রহমানের মোবাইলে বারবার যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। পরে আবারও কল দিলে তিনি ফোনটি বন্ধ করে দেন।

এরপর পৌর শহরের কালীসাগর পাড়ে তার বাড়িতে গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি। এ সময় তার স্ত্রী একই কলেজের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক শাহীণুর আয়েশা সিদ্দীকা তার স্বামীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেন।

উল্লেখ্য, এর আগে গত কয়েকদিন ধরে আন্দোলনরত শিক্ষকরা পৌর শহরসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অধ্যক্ষ মিজানুর রহমানের অপসারণ চেয়ে লিফলেট বিতরণ করেন। এরপর দেয়ালে দেয়ালে তার (অধ্যক্ষ) দুর্নীতি’র চিত্র তুলে ধরে পোস্টারিং করা হয়।

শাহীন রহমান/পাবনা