রৌমারী সরকারি কলেজ।

কুড়িগ্রামের রৌমারী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ সামিউল ইসলাম জীবনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ করেছে শিক্ষার্থীরা। এব্যাপারে রৌমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

উপবৃত্তি তালিকাভুক্তির জন্য শিক্ষার্থীদের তথ্য বিবরণের ফরম বিতরণের সময় অবৈধভাবে অর্থ আদায় করা হচ্ছে। ৫টাকা খরচের ফরম বিতরণের সময় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে জোরপূর্বক আদায় করা হচ্ছে জনপ্রতি দুইশ’ টাকা করে। অবৈধ ভাবে এ অর্থ আদায়কে অধ্যক্ষের চাঁদাবাজি উল্লেখ করে ১৮ মে শনিবার সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা।

অভিযোগে জানা গেছে, উপবৃত্তির জন্য শিক্ষার্থীদের তথ্য বিবরনীর জন্য কলেজের অধ্যক্ষ একটা ফরম তৈরি করেছেন।

এ ফরম তৈরি করতে খরচ হয়েছে সর্বোচ্চ ৫টাকা।

সেখানে শিক্ষার্থী প্রতি আদায় করা হচ্ছে দুইশ’ টাকা করে। একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণিতে প্রায় ৫শ’ শিক্ষার্থী রয়েছে। সে হিসেবে টাকা ওঠে এক লাখ টাকা।

বি.এ ৩য় বর্ষের লিমন আহমেদ নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমরা কলেজে খোঁজ নিয়েছি। উপবৃত্তির ফরম বিতরণের নামে যে টাকা আদায় করা হচ্ছে তা সম্পূর্ন অধ্যক্ষ স্যারের নিজের ইচ্ছায়। স্যার তার নিজস্ব ও বিশ্বস্থ প্রভাষক মাসুদ রানা কে দিয়ে ওই চাঁদাবাজি করছেন শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে।’ একই ধরণের অভিযোগ করেন কলেজের শিক্ষার্থী মাসুদ পারভেজ, আসাদুল ইসলামসহ অনেকে।

কলেজে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপবৃত্তির ফরম পূরণে ওই অর্থ আদায়কে কেন্দ্র কলেজের শিক্ষকদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সহকারি অধ্যাপক বলেন, ‘অধ্যক্ষ এভাবে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে অবৈধ ভাবে ফি আদায় করে থাকেন যার কোনো হিসাব দেন না। এছাড়াও ভর্তি, পরীক্ষা ও ফরম পূরণের সময়েও অতিরিক্ত হারে অর্থ আদায় করা হয়। এসব অর্থের সঠিক কোনো হিসাব নেই।’

অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অধ্যক্ষ সামিউল ইসলাম জীবন চাঁদাবাজির অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘উপবৃত্তির জন্য ওই ফরম তৈরি করতে খরচ হয়েছে। সেই খরচের টাকা আদায় করা হচ্ছে।’ কিন্তু জনপ্রতি দুইশ’ টাকা করে কেন-এমন বিষয়ে তিনি বলেন। ফরম তৈরির খরচ শেষে যে টাকা থাকবে তা কলেজ উন্নয়নে ব্যয় করা হবে। নিজে আত্মসাৎ করার কথা তিনি অস্বীকার করেন।’

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার দ্বীপঙ্কর রায় বলেন, উপজেলা মাধ্যমিক অফিসারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে শিক্ষার্থীদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে।

আজকের পত্রিকা/রৌমারী/এমএআরএস