‘বহুভাষায় সাক্ষরতা, উন্নত জীবনের নিশ্চয়তা’ প্রতিপাদ্য সামনে রেখে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলার সাথে সাথে চরফ্যাশন উদযাপিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস।

ববিবার সকাল ১০টায় চরফ্যাশন উপজেলা চত্বর থেকে এক র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি বাজার উল্লেখযোগ্য সড়ক প্রদক্ষিন শেষে উপজেলা পরিষদে এক আলোচনা সভায় মিলিত হন।

এই সময় উপজেলা প্রকৌশলী (এলজি-ই-ডি) মো.রেজাউল করিম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জিয়াউল হক, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তৃষিত কুমার চৌধুরী সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো.রফিকুল ইসলামসহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরে কর্মকর্তা ও কর্মচারী ও শিক্ষর্থীগন উপস্থিত ছিলেন।

বক্তরা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিরলস প্রচেষ্টায় দেশে সাক্ষরতার হার বৃদ্ধি পেয়েছে।

সাক্ষরতা ও উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা সংক্রান্ত উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে দেশকে নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে মুক্তের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

ব্যক্তি, সম্প্রদায় ও সমাজে সাক্ষরতার গুরুত্ব তুলে ধরতে ১৯৬৫ সালে ইউনেস্কো ৮ সেপ্টেম্বরকে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন।

বলেন,-শিক্ষা হলো জ্ঞান অর্জনের মূল ভিত্তি। আর সাক্ষরতা অর্জন হলো শিক্ষার প্রাথমিক সোপান। এছাড়াও জাতিসংঘ প্রণীত টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট-৪ (এসডিজি-৪) অনুযায়ী মানসম্মত ও সর্বজনীন শিক্ষা নিশ্চিত করতে সরকার নানামুখী কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।

আমির হোসেন/চরফ্যাশন