পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারে সভা।

ঢাকা- চট্টগ্রাম ও চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে ৪৮ ঘণ্টার ধর্মঘট ২৫ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার পর প্রত্যাহারের আশ্বাস দিয়েছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

বুধবার( ২৪ এপ্রিল) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরীর সার্কিট হাউসে মতবিনিময় সভা শেষে এই সিদ্ধান্ত নেন শ্রমিক নেতারা।

এ সময় জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেন, পুলিশ সুপার নুর-ই আলম ও ৩০ শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন ।

এর আগে

চট্টগ্রামে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিচয়ে বাস চালক জালাল উদ্দিনকে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে উত্তরের আট জেলায় অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘটের আহবান করেছে বাংলাদেশ সড়ক উত্তরের আট জেলায় অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট শ্রমিক ফেডারেশন। এদিন ৮ জেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রশাসন বরাবর স্মারকলিপি দেয়ার কর্মসূচী ঘোষণা করেছে।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) রাত এগারটার দিকে উক্ত কর্মসূচীর বিষয়টি নিশ্চিত করে দিনাজপুর জেলা ট্রাক ট্যাংকলরি কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক সাদাকাতুল বারী সাদা আজকের পত্রিকাকে জানান, চট্রগ্রামে শ্রমিক হত্যার প্রতিবাদে ও জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) ভোর থেকে রংপুর বিভাগের দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, রংপুর, লালমনিরহাট ও নীলফামারী জেলাতে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট ডাকা হয়েছে।

তিনি জানান, কক্সবাজার থেকে দিনাজপুর আসার সময় চালক জালাল উদ্দিনকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে বাস থেকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে রংপুর বিভাগীয় কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ ভোর থেকে উত্তরের রংপুর বিভাগের জেলা গুলোতে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) সকাল ১০টায় বিভাগীয় নেতাদের বৈঠক শেষে আন্দোলনের বিষয়ে নতুন সিদ্ধান্ত জানাযাবে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার (২২ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১১টায় চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার শান্তিরহাট এলাকায় শ্যামলী পরিবহনের চালক ও দিনাজপুর দশমাইল এলাকার আফজাল হোসেনের ছেলে জালাল উদ্দিনকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে বাস থেকে নামিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করা হয়। পরে রাতে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এদিকে বুধবার (২৪ এপ্রিল) বিকেলে নিহতের নিজ এলাকায় জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। নিহত জালাল উদ্দিনের একজন প্রতিবন্ধীসহ তিনটি ছেলে সন্তান ও স্ত্রী রয়েছেন।

আজকের পত্রিকা/এমএআরএস