কালো ঘাড়ের প্রথম কারন হতে তাকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার অভাব। ছবি: সংগৃহীত

হতে পারে আপনার মুখ দাগহীন, কিন্তু আপনার ঘাড় খুবই কালো। এর ফলে আপনার সৌন্দর্য পুরোটাই নষ্ট হয়ে যায়। আপনি কি কোনোদিন ভেবেছেন আপনার মুখের থেকে ঘা এতো কালো কেনো? কালো ঘাড়ের প্রথম কারন হতে পারে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার অভাব। আরেকটা কারন হতে পারে উল্টা-পাল্টা কসমেটিকস ব্যবহার করা।

অস্থির হবার কিছু নেই, ঘাড় কালো হয়ে গেলে যা করা উচিত তা জেনে নিন-

অ্যালোভেরা

অ্যালোভেরার কিন্তু যেকোনো দাগকে তোলার ক্ষমতা রয়েছে। ছবি: সংগৃহীত

যেকোনো দাগ তোলার ক্ষমতা রয়েছে অ্যালোভেরার। তাই এটি এক্ষেত্রেও অসাধারণ কাজ করবে। ঘাড়ের ত্বক ময়েশ্চারাইজড করবে। সেই সঙ্গে কালো দাগ দূর করতে এর জুড়ি মেলা ভার।

ফ্রেশ অ্যালোভেরা জেল নিয়ে ঘাড়ে একটু ম্যাসাজ করুন। তারপর ওটা লাগিয়ে রাখুন ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মতো। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এটা রোজ করতে পারেন। খুব তাড়াতাড়ি ভালো ফল পাবেন। তবে সময় না থাকলে, সপ্তাহে দুদিন করুন।

অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার

সৌন্দর্য রক্ষার্থে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার। ছবি: সংগৃহীত

অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার শক্তিশালী প্রাকৃতিক উপাদান, যাতে রয়েছে অ্যাসিটিক অ্যাসিড, সাইট্রিক অ্যাসিড এবং ম্যালিক অ্যাসিড। এছাড়া এতে রয়েছে ভিটামিন, এনজাইম, মিনারেল সল্ট এবং অ্যামিনো অ্যাসিড যা শরীরের দাগ কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও ত্বকের নানা সমস্যা দূর করে থাকে। সৌন্দর্য রক্ষার্থে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার।

কটন বলে আপেল সিডার ভিনেগার লাগিয়ে ঘাড়ে লাগান। এরপর একটি ব্যান্ডেজ লাগিয়ে সারারাত রেখে দিন। আপেল সিডার ভিনেগার লাগানোর আগে ঘাড়ের চারপাশের ত্বকে পেট্রোলিয়াম জেলী লাগিয়ে নিন। আস্তে আস্তে দাগ কমতে থাকবে।

কাঠবাদাম তেল

কাঠবাদাম তেল হলো প্রাকৃতিক ময়েশচারাইজার। ছবি: সংগৃহীত

কাঠবাদাম তেলে আছে ফ্যাটি অ্যাসিড। তাই এটি স্কিনের যেকোনো চর্ম সমস্যা দূর করতে সহায়তা করে। এবং প্রদাহ হ্রাস করে। কাঠবাদাম তেল হলো প্রাকৃতিক ময়েশচারাইজার। এতে কোনো কেমিক্যাল বা প্রিজেরভেটিভ নেই। তাই এই তেলকে সিরাম হিসাবেও ব্যবহার করা যেতে পারে।

বাদাম তেল কিছুটা গরম করে নিন। এই তেলটি ঘাড়ে চক্রাকারে ম্যাসাজ করুন কিছুক্ষণ। এটি প্রতিদিন করুন। চার-পাঁচটি কাঠবাদাম সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে দিন। সকালে বাদামগুলো পিষে পেস্ট করে ঘাড়ে লাগিয়ে কয়েক মিনিট ধরে ম্যাসাজ করুন। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে এক বা দুই দিন এটা করুন।

টক দই

টক দই ত্বকে প্রাকৃতিক ব্লিচের কাজ করে। ছবি: সংগৃহীত

টক দইয়ে আছে প্রাকৃতিক এনজাইম, ল্যাকটিক এসিড। এছাড়া এতে ভিটামিন বি ১২ রয়েছে, যা ত্বকে প্রাকৃতিক ব্লিচের কাজ করে। এর ফলে ত্বকের কালচে দাগ সহজেই দূর হয়। প্রতিদিন ১৫ মিনিটের জন্য টক দই ঘাড়ে লাগিয়ে রাখুন। ধীরে ধীরে কালো দাগ চলে যাবে।

আলু

ঘাড়ের দাগ দূর করতে আলু অনেক উপকারি। ছবি: সংগৃহীত

মুখের দাগ দূর করতে আলুর জুড়ি নেই। বিশেষ করে ঘাড়ের দাগ দূর করতে আলু অনেক উপকারি। আলু চিপে রস বের করে নিন। আলুর রসের সাথে কাঁচা দুধ দিন। ভালো করে মিশিয়ে এই মিশ্রণ ঘাড়ে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। কিছুদিন ব্যবহারেই দাগ-ছোপ কমবে।

আজকের পত্রিকা/সিফাত