গ্রাম সুরক্ষিত রাখতে ৩শ’ সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হচ্ছে পাবনার তিলকপুর গ্রাম। ইতোমধ্যে ৩২টি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বসানো হবে পুরো গ্রামে।

দেশে এ প্রথম কোনো গ্রামকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনার উদ্যোগকে স্বাগত জানানোর পাশাপাশি সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ প্রশাসন।

পাবনা শহর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে ঈশ্বরদী উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নের তিলকপুর গ্রাম। বাস করে প্রায় ৩ হাজার মানুষ। এখানে চুরি-ছিনতাইয়ের ঘটনা যেন নিত্যদিনের আর মাদকসেবী-বিক্রেতাদের আনাগোনা ও ইভিটিজিংয়ের কারণে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী।

এসব অনৈতিক ও অসামাজিক কর্মকাণ্ড থেকে বাঁচতে নতুন এক উদ্যোগ নেয় গ্রামের যুব সমাজ ও তিলকপুর হাফিজিয়া মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। পুরো গ্রামকে সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে আসতে কাজ শুরু করেন তারা। এরইমধ্যে গত ২৭ ডিসেম্বর গ্রামের বিভিন্ন পয়েন্টে ৩২টি সিসি ক্যামেরা বসিয়ে কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। পর্যায়ক্রমে আরো ৩শ সিসি ক্যামেরা বসানো হবে।

এর মাধ্যমে অসামাজিক ও অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড নিয়ন্ত্রণসহ নিরাপত্তা বাড়বে হবে বলে প্রত্যাশা করেন পাবনা দারুচিনি ফ্যাশন কর্পোরেশন উদ্যোক্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহীন রানা। বলেন, ২৪ ঘণ্টা থানার সঙ্গে লিংক থাকবে এসব সিসি ক্যামেরার। যার ফলে এ গ্রাম থেকে চিরতরে অনৈতিক কাজ দূর হবে চিরতরে।

৭ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের এ গ্রামে ৩শো’ সিসি ক্যামেরা স্থাপনে প্রায় ৩০ লাখ টাকা ব্যয় হবে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা।