অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২০-এ প্রকাশিত হতে যাচ্ছে কবি ও লেখক আলতাফ শাহনেওয়াজের দীর্ঘ কবিতার বই ‘সামান্য দেখার অন্ধকারে’। বইটি প্রকাশ করছে প্রথমা প্রকাশন। মূল্য ১৮০ টাকা।

বইটি সম্পর্কে কবি জানিয়েছেন, “সে এক ঘোর ছিল বটে! ২০১৯ সালের জুলাই মাসের এক বৃহস্পতিবার রাতে খুব অকস্মাৎই একের পর এক লাইন আসা শুরু হলো মাথার ভেতরে- লাইন, লাইন…লাইনের পর লাইন…এমনভাবে ঘোরগ্রস্তের মতো লাইন আসা চলল শনিবার রাত অব্দি। এই তিন দিন কীভাবে যে সময় পার হয়েছে আমার! তবে তিন দিনের ওই ঘোরগ্রস্ত সময়ে ততক্ষণে লেখা হয়ে গেছে ‘সামান্য দেখার অন্ধকারে’ নামের কবিতাটি। তারপর ওই দীর্ঘ কবিতাটি মস্তিষ্কে এবং হৃদেয় নিয়ে ঘুরেছি বছরের বাকি দিনগুলো- একেবারে ডিসেম্বর পর্যন্ত।”

কী আছে এই দীর্ঘ কবিতায়? কবির ভাষায়, ‘সামান্য দেখার অন্ধকারে’ নামের এই কবিতার ছত্রে ছত্রে আছে সময়ের ভেতর দিয়ে আমার এবং আমাদের বেড়ে ওঠার বয়ান। যখন প্রতিনিয়ত আমাদের তাড়া করে না- দেখা এক ভয়, তখন কেমন আছি আমরা? কেমন আছে মানুষ? ‘সামান্য দেখার অন্ধকারে’ নামের দীর্ঘ কবিতাটিতে তিনি কাব্যছন্দে বলতে চেয়েছেন সে কথাই।

এই দীর্ঘ কবিতাগ্রন্থের পাণ্ডুলিপি গোছানো নিয়ে কবি জানিয়েছেন তার অনুভূতি। কেমন ছিল সে সময়গুলো? আলতাফ শাহনেওয়াজ জানিয়েছেন, ‘গেল ছয় মাস ধরে দিন-রাত্রিতে যে কবিতা, যে পাণ্ডুলিপি, যে কবিতাটি সর্বক্ষণ সঙ্গে সঙ্গে রেখেছি, বারবার পড়েছি, কেটেছি, কবিতার মিউজিক্যালিটি ঠিক করেছি, ছন্দ ঠিক করেছি বা কখনো ছন্দকে আরও সাবলীল করার চেষ্টা করেছি, আমার সেই কবিতা, সেই কবিতার পাণ্ডুলিপিটি বইয়ের সাজে প্রেসে গেল। তাই এখন কেমন যেন খালি খালি লাগছে বুকের ভেতরে। এ যেন কন্যা বিদায়ের মুহূর্ত। তাই কেমন একটা অবসাদ ও ক্লান্তি বোধ হচ্ছে এখন ভেতরে–ভেতরে। একেকটি বইয়ের পাণ্ডুলিপির কাজ শেষ হওয়ার পর আমার এমন হয়- চোখ ভেঙে ঘুম আসে। মনে হয়, অনেক দিন পর এখন আমার ঘুম দরকার।’

আলতাফ শাহনেওয়াজের অন্যান্য গ্রন্থগুলোর মধ্যে রয়েছে- ‘আলাদিনের গ্রাম’ (কবিতাগ্রন্থ), ‘নৃত্যকী’ (নাটক) এবং ‘কলহ বিদ্যুৎ’ (কবিতা)।

আজকের পত্রিকা/সিফাত