গেস্টরুম কালচার বন্ধের দাবিতে বাকৃবিতে সোনালী দলের মানববন্ধন

বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিং ও গেস্টরুম কালচারের নামে শিক্ষার্থী নির্যাতন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সোনালী দল।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) দুপুর ১২ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চের সামনে ওই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। মানববন্ধনে বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যার কঠিন বিচারের দাবিও জানান তারা।

সোনালী দলের সহ-সভাপতি অধ্যাপক এ.এস.এম গোলাম হাফিজ তার বক্তব্যে বলেন, এখন পর্যন্ত সারাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী হত্যার ঘটনা ঘটলেও বেশির ভাগেরই কোনো বিচার হয়নি। নির্যাতিত হচ্ছে অনেকেই, কিন্তু ক্ষমতাসীনদের ভয়ে কিছু বলার সাহস পাচ্ছে না কেউ। আমরা নিপীড়িত মানুষের প্রতিনিধি হিসেবে আজ রাস্তায় দাড়িয়েছি। মানুষ একদিন জেগে উঠবেই, অন্যায়কে প্রতিহত করতে একযোগে ফুঁসে উঠবে।

মানববন্ধনে অন্যান্য বক্তারা বলেন, দেশের প্রতিটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন সরকারদলীয় ছাত্র সংগঠনে ত্রাসের পরিবেশ বিরাজ করছে। গেস্টরুম কালচার ও র‌্যাগিংয়ের নামে সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রতিনিয়ত নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। এরই অন্যতম উদাহরণ বুয়েটের আবরার এবং বাকৃবির সাদ হত্যা। দেশবিরোধী চুক্তির প্রতিবাদ করায় আবরারকে হাত-পা বেধে যে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি আমরা।

অধ্যাপক ড. মো. শহীদুল হকের সভাপতিত্বে ও অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল আলীমের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে সোনালী দলের অন্যান্য সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন। এসময় বাকৃবিতে গেষ্টরুম কালচারের নামে র‌্যাগিং বন্ধের জোর দাবি জানানো হয়। মানববন্ধনে প্রয়াত বুয়েট শিক্ষার্থী আবরারের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।

তানিউল করিম জীম/বাকৃবি