খালি পেটে কফি পান করায় আপনার পাচক সিস্টেম ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। ছবি: সংগৃহীত

সকালে ঘুম থেকে উঠে বিছানায় বসে এক কাপ গরম কফির থেকে ভালো আর কী হতে পারে? অনেকের কাছে এক কাপ কফি ছাড়া দিন শুরুই হয় না। এই উষ্ণ পানীয়টি স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। তবে খালি পেটে এটি পান করলে তার বিপরীত হতে পারে।

প্রতিদিন কফি পান করায় অনেক স্বাস্থ্য সুবিধা আছে, তবে তা নির্ভর করে কী পরিমানে পান করছেন আর কখন পান করছেন তার উপর। খালি পেটে কফি পান করায় আপনার পাচক সিস্টেম ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। এই ক্যাফেইন যুক্ত পানীয় পেটের মধ্যে অ্যাসিড উৎপাদন করতে পারে, যা আপনার পেটের আস্তরণের ক্ষতি করে।

অ্যাপোলো হসপিটালসের প্রধান ক্লিনিকাল পুষ্টিবিদ প্রিয়াংকা রোহতাগি বলেছেন, ‘সকালে যদি আপনি ব্ল্যাক কফি পান করেন, তাহলে আপনার গ্যাসের সমস্যা হতে পারে। কিন্তু আপনার কফিতে যদি হালকা চিনি এবং দুধ থাকে, তবে এটি খারাপ নাও হতে পারে। তবে নিশ্চিত করুন যে আপনি সীমিত পরিমাণে এটি পান করেন।’

আপনি যদি গর্ভবতী হন বা নির্দিষ্ট ঔষধের অধীনে থাকেন তবে সকালে কফি পান করা এড়িয়ে যেতে হবে। ছবি : সংগৃহীত

পুষ্টিবিদ আরও জানিয়েছেন, কারো যদি গ্যাস্টিকের সমস্যা থাকে, তাহলে সকালে কফি পান করার অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে। এছাড়াও কফি পান করার পূর্বে কিছু বিস্কুট বা কয়েকটা বাদাম খেয়ে নেওয়া যায়।

গবেষণা থেকে জানা যায়, সকালে কফি পান করার কারণে করটিসল স্তরের উৎপাদনও হ্রাস পেতে পারে, যার ফলে আপনার আবার ঘুম আসতে পারে। অনেকেই সকালে ব্যায়াম করার আগে কফি পান করে নেন। এটিও আপনার স্বাস্থ্যের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।

আজকের পত্রিকা/রিয়া/সিফাত

SOURCEই টাইমস