'উরি' সিনেমার পোস্টার। গ্রাফিক্স: আজকের পত্রিকা

অ্যাকশান ধর্মী সিনেমা ‘উরি’। ভারতের জম্মু এবং কাশ্মীর রাজ্যে উরি এলাকায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর একটি সেনা ঘাঁটিতে ঘটে যাওয়া ঘটনার প্রেক্ষাপটকে কেন্দ্র করে নির্মাণ করা হয়েছে এই সিনেমা। ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ সালে এক জঙ্গি হামলায় এখানে ১৮ জন সেনাবাহিনী সদস্য নিহত হন। সিনেমা শুরুটাই বেশ আকশ্মিকভাবে।

ছবির মতো সুন্দর একটা বনের ভিতর দিয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক কনভয় সৈন্য যাচ্ছে। গান হচ্ছে সবার মধ্যে খুনসুটি চলছে। সবার বেশ ফুরফুরে মেজাজ। হঠাৎ থেমে যায় সব। আক্রমন করে বসে একদল জঙ্গি। একটু আগের হাস্যোজ্জ্বল চেহারাগুলো পরিণত হয় লাশে।

প্রথম পাঁচ মিনিটেই এরকম শ্বাসরুদ্ধকর সিকুয়েন্স পুরো সিনেমাজুড়ে দর্শকদের মনোযোগ ধরে রাখবে। সিনেমার গল্প মোড় নেয় চৌকস অফিসার মেজর বিহারকে ঘিরে। তার সাথে একই ইউনিটে আছেন মেজর করণ আর ক্যাপ্টেন সারতাজ। প্যারাস্যুট বাহিনী নিয়ে তারা ধ্বংস করে দেয় জঙ্গিদের ঘাঁটি। সাময়িকভাবে শান্তি ফিরে আসে ভারতের মাটিতে। কিন্তু বিহানের জীবনে নেমে আসে আরে বিপর্যয়। হঠাৎ তার মা অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে হেডকোয়ার্টারে নিয়ে আসা হয়। বিহানের মায়ের যত্ন নেওয়ার নামে তার হেডকোয়ার্টারে উপস্থিত হন তুখোড় এজেন্ট পল্লবী শর্মা। এদিকে জঙ্গিদের হামলায় শহিদ হন মেজর করণ। বিহান শুধু ইউনিট অফিসারই নন, মেজর করণের ছোটবেলার বন্ধু এবং বিহানের ভগ্নীপতি। তাই সার্জিকাল স্ট্রাইকে বন্ধুর মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে বিহান নিজেই যোগ দিতে চান পাকিস্তানের মাটিতে। কথা দেন প্রতিটি সৈন্যকে জীবিত ফিরিয়ে আনবেন তিনি। এই নিয়ে দুঃশ্চিন্তার শেষ নেই। বিহান কি পারবে নিজের কথা রাখতে? জানতে হলে দেখতে হবে শ্বাসরুদ্ধকর এই সিনেমাটি।

এক নজরে ‘উরি’

মুক্তি: ১১জানুয়ারি, ২০১৯
পরিচালক: আদিত্ত ধার
প্রযোজক: রুন্নি স্কিউভালা
বাজেট: ৪৯ কোটি রুপি
আয়: ১৮৯ কোটি ৭৬ রুপি
অভিনয়: ভিকি কুশল, রাজি, সঞ্জু ও মনমর্জিয়া।
ব্যাপ্তি: ১৩৮ মিনিট।

দেখুন সিনেমাটির ট্রেলার

আজকের পত্রিকা/এসএ/এমআরএস