ছবি: সংগৃহীত

গত ১৩ আগস্ট ঈদ-উল-আযহার সরকারি ছুটির দিন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার পদের মেয়াদ শেষ করেন মো. আছাদুজ্জামান মিয়া। কিন্তু এখনো এই পদে নতুন কাউকে দায়িত্ব না দিয়ে ওইদিনই আছাদুজ্জামান মিয়ার দায়িত্বের মেয়াদ ১ মাস (১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত) বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এর আগে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল সিআইডি প্রধান শফিকুল ইসলাম অথবা পুলিশ সদর দফতরের অতিরিক্ত আইজিপি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুনের কেউ একজন পাবেন ঢাকা মেট্রপলিটনের এই গুরুদায়িত্ব। তবে হঠাৎ করেই কেন আছাদুজ্জামান মিয়ার মেয়াদ বাড়ানোর এমন সিদ্ধান্ত?

ডিএমপির দায়িত্বশীল এক সূত্র থেকে জানা যায়, ভয়ানক আগস্ট সামলানোর অভিজ্ঞতার কারণেই তাকে এই পদে আরও এক মাস বহাল রাখা হয়েছে। ২০১৭ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ধানমন্ডি ৩২ নম্বরের বাড়ির সামনে হামলার পরিকল্পনা ছিল জঙ্গিদের। ধানমন্ডির হোটেল ওলিওতে অবস্থান করে আত্মঘাতী বিস্ফোরণও ঘটায় ওই জঙ্গি। এরপর থেকেই আগস্টে বাড়তি নিরাপত্তা নেয় পুলিশ। সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে গত ৪ মাস ধরে দেওয়া বিভিন্ন হুমকির মোকাবিলা করছে বাংলাদেশ পুলিশ ও ডিএমপি। এছাড়া ১৭ আগস্ট সারাদেশে বোমা বিস্ফোরণ, ২১ আগস্ট বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর ওপর গ্রেনেড হামলার মতো ঘটনা ঘটেছিল। জঙ্গিরা আবারও মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে কি না- সেই আশঙ্কায় আগস্টে নতুন কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি।

প্রতি বছরের আগস্ট মাসে রাজধানীর জন্য বিশেষ নিরাপত্তা পরিকল্পনা নেয় ডিএমপি। এবারও তা নেওয়া হয়েছিল। তাই নতুন কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হলে সমন্বয়হীনতা হতে পারে, এ কথা বিবেচনা করে আছাদুজ্জামানের মেয়াদ বাড়ানো হয়।

এখন দেখার বিষয় আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর ডিএমপি কমিশনারের অবসরের পর নতুন করে কে এই দায়িত্ব নেবেন!

আজকের পত্রিকা/সিফাত