রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে একাডেমিক কার্যক্রম চলাকালীন সব ধরনের উচ্চ শব্দ বন্ধের নির্দেশ দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। প্রতিবারই শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন সংগঠন এবং প্রতিষ্ঠান এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে থাকে। এবার এতে সামিল হয়েছেন প্রশাসনও।

সরেজমিনে দেখা যায়, সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টার দিকে মাইকিং করা শুরু হয়৷ ক্যাম্পাসের প্রধান সড়কগুলো দিয়ে মাইকিং করা হয়৷ পরবর্তী ইসমাইল হোসেন সিরাজী ভবনের সামনে গিয়েও অবস্থান করে। একাডেমিক ভবনে পরীক্ষা চলছিল নৃবিজ্ঞান এবং ফোকলোর বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের। এছাড়াও একই সময় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ভবনে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের পরীক্ষা চলে। মাইকিং এর কারণে পরীক্ষার হলে বসে পরীক্ষা দেওয়া কষ্টকর বলে জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

তিনদিন আগে নৃবিজ্ঞান বিভাগের র্যাগ ডে পালনের কারণে অন্যান্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় ব্যাঘাত ঘটে। এবার প্রশাসনের মাইকিং এর ফলে ভুক্তভোগী হয়েছেন তারাই। ওই বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মোজাম্মেল হক বলেন, পরীক্ষা চলাকালীন সময় আজ বিশ্ববিদ্যাল প্রশাসনের পক্ষ থেকে উচ্চ শব্দে মাইকিং করা হয়েছে। এতে করে পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী সকল শিক্ষার্থীদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে। এর আগে প্রশাসন এবিষয়ে কড়াকড়ি নিয়ম করলেও এর কোন কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে দেখা যায় নি। আমরা চাই এধরণের সমস্যা নিরসনে প্রশাসন আরও কঠোর হোক।

এ বিষয়ে প্রক্টর লুৎফর রহমান বলেন, সামনে ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস উপলক্ষে মাইকিং করা হয়। জাতি ও শিক্ষার্থীদের স্বার্থে এই কাজ করা হয়েছে। যদিও এটি একাডেমিক সময়ে করা উচিত হয়নি।

এমএ জাহাঙ্গীর/রাবি