কৃষিমন্ত্রী সাথে রাশিয়ার ইউরোসেম গ্রুপ জি’র পরিচালক আরিল হুগা ’র সাক্ষাত

কৃষিতে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে উদাহরণ বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড.আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেন, ‘ধান, গম ও ভুট্টা চাষে বিশ্বের গড় উৎপাদনকে পেছনে ফেলে ক্রমেই এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ’।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘ আমাদের কৃষিবিদ, বিজ্ঞানী , গবেষক সর্বপরি আমাদের কৃষকদের একাগ্রতা নিষ্ঠা ও সক্ষমা দিয়ে আজ দেশকে খাদ্যে সাফল্য এনে দিয়েছে’।

২৪ এপ্রিল বুধবার কৃষিমন্ত্রী সাথে মন্ত্রণালয় তার অফিস কক্ষে রাশিয়ার ইউরোসেম গ্রুপ জি’র পরিচালক আরিল হুগা এর নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দলের সাথে সাক্ষাতকালে এসব কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘ কৃষিতে আমাদের এখন সহায়তা প্রয়োজন বিনিয়োগ, রপ্তানি, বাজারজাত ও প্রক্রিয়াজাতকরণে। সময়ের বিবর্তনে এসেছে নতুন নতুন ফসল, প্রসারিত হচ্ছে নব নব প্রযুক্তি’।

কৃষিকে বহুমুখীকরণে বাংলাদেশ এখন বেশ অগ্রগামী। কৃষি সেক্টরে ধান, পাটের পাশাপাশি মৎস্য ও পশু পালন, দুগ্ধ উৎপাদন, হাঁস-মুরগি পালন, নার্সারি, বনায়ন এবং কৃষিভিত্তিক ক্ষুদ্রশিল্পের দ্রুত প্রসার ঘটছে বলে কৃষিমন্ত্রী জানান।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ সবসময় পরিবেশ সুরক্ষার দিক বিবেচনা করে নতুন নতুন ফসলের জাত উদ্ভাবন করে থাকে। মানুষ ও পরিবেশের জন্য উপযোগি জাত উদ্ভাবনে সবসময় সচেষ্ট রয়েছে আমাদের কৃষি বিজ্ঞানীগণ।

বাংলাদেশের কৃষির সাফ্যলের প্রশংসা করে আরিল হুগা বলেন, ‘রাশিয়া বাংলাদেশের কৃষির উন্নয়নে পাশে থাকতে চায়। বাংলাদেশে সার রপ্তানির ক্ষেত্রে তারা সর্বোচ্চ সহযোগিতার মনোভাব থাকবে।বাংলাদেশের কৃষি প্রক্রিয়াজতকরণের বিষয়ে কথা হয় প্রতিনিধি দলের সাথে।

আজকের পত্রিকা/আর.বি/আ.স্ব