ধান কাটলেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী।

কৃষকের ক্ষেতের ধান কোনো মজুরি ছাড়াই কেটে দেয়ার ঘোষণার পর নবীগঞ্জে এক কৃষকের ক্ষেতের ধান কেটে দিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

নবীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহ ফয়ছল তালুকদারের নেতৃত্বে কৃষকের বেশে নেতাকর্মীরা কৃষকের ক্ষেত থেকে ধান কেটে তা গোলায় পৌঁছে দিয়ে আসেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ২৩ মে শনিবার দুপুরে ১১টার দিকে উপজেলার কুর্শি গ্রামের জিতু মিয়ার সহ ৩ জমির ধান কাটছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহ ফয়ছল তালুকদার, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল উসলাম রুবেল, কালিয়ারভাঙ্গা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মোজাহিদ আহমদ জিহাদ, সহ-সভাপতি সাজু চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক উজ্জল সরকার, আউশকান্দি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক পাপলু আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাসির কামাল, ইনাতগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জামিউল হকসহ উপজেলা ও বিভিন্ন ইউনিয়নের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

সম্প্রতি, ছাত্রলীগের সভাপতি রেজোওয়ানুল চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশজুড়ে ধান কাটা শ্রমিকের মজুরি তুলনামূলকভাবে বেশি হওয়ায় এবং মজুরি স্বল্পতার কারণে বেশকিছু অ লের কৃষকরা পাকা ধান কাটতে হিমশিম খাচ্ছেন।

এমতাবস্থায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর অন্তর্গত সকল ছাত্রলীগ কর্মী কৃষকের প্রয়োজনীয়তা অনুসারে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে পাশে থাকবে। ধান কাটাসহ সর্বাত্মক সহযোগিতা করার জন্য ছাত্রলীগের সবার প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

মতিউর রহমান মুন্না/নবীগঞ্জ/হবিগঞ্জ