কুমিল্লায় ১১-২০ গ্রেডের সরকারি চাকুরীজীবীদের বিভাগীয় সম্মেলন

১১-২০ গ্রেডের সরকারী চাকুরীজীবীদের ৮ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে শুক্রবার বিকেলে কুমিল্লা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খামার বাড়ি সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রাম-২ (সাংগঠনিক বিভাগ)বিভাগীয় সম্মেলন-২০১৯ অনুঠিত হয়েছে।

এতে সংগঠনের কুমিল্লা,নোয়াখালী , লক্ষèীপুর,চাঁদপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

কাজী জাহিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের কেন্দ্রীয় আহবায়ক পরিষদের আহবায়ক মিরাজুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি ও প্রধান আলোচক ছিলেন, সদস্য সচিব কেন্দ্রীয় আহবায়ক পরিষদের মাহমুদুল হাসান।

বক্তারা ২০১৫ সালে প্রদত্ত ৮ম পে-স্কেল সংশোধনসহ বেতন বৈষম্য নিরসন কওে গ্রেড অনুযায়ী বেতন স্কেলের পার্থক্য সমহারে নির্ধারন ও গ্রেড সংখ্যা কমানো, এক ও অভিন্ন নিয়োগ বিধি বাস্তবায়ন, সকল পদে পদোন্নতি বা ৫ বছর পর পর উচ্চতর গ্রেড প্রদান, টাইমস্কেল, সিলেকশন গ্রেড পুনঃবহালসহ বেতন জৈষ্ঠতা বজায় রাখা, সচিবালয়ের ন্যায় পদবী ও গ্রেড পরিবর্তন, সকল ভাতা বাজার চাহিদা অনুযায়ী সমন্বয়, নিম্ন বেতনভোগীদেও জন্য রেশন ও ১০০% পেনশন চালুসহ পেনশন গ্রাচুইটির হার ১ টাকা = ৫’শ টাকা করা এবং কাজের ধরন অনুযায়ী পদনাম ও গ্রেড একিভূত করার দাবী জানান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংগঠনের কেন্দ্রীয় আহবায়ক মিরাজুল ইসলাম বলেন, আমরা কেউ নেতা না, স্বেচ্ছাশ্রমে আমরা এই কাজ করছি। ১২ লাখ কর্মচারীর দুঃখ,দুর্দশা লাঘবে আমাদেও এই প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে পদ নয় দাবি আদায়ের লক্ষ্যে সম্মিলিতভাবে আমাদেও কাজ করতে হবে বলে তিনি আরো বলেন,কে সুইপার,কে অন্য কিছু সেটা ভাবার সময় নেই।

তাদের দাবির কথা উল্লেখ কওে তিনি আরো বলেন, আমাদেও এই দাবীর বিষয়ে কোন আশ্বাস বা সিদ্ধান্ত না পেলে আগামী বৃহত্তর আন্দোলন ঘোষণা করা হবে।

সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের লক্ষ্মীপুর জেলার সদস্য সচিব মনিরুজ্জামান মনির, নোয়াখালীর আহবায়ক আবুল হোসেন , চাঁদপুরের যুগ্ম আহবায়ক রোশন মিয়া , ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আবুল কালাম আজাদ, কুমিল্লার মাহবুবুল হক মজুমদার , সুলতান নাসির উদ্দিন , আবু হানিফ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবার ইব্রাহিম খলিল।

সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন ও গীতা পাঠ শেষে অনুষ্ঠানের সভাপতি স্বাগত বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনায় ছিলেন, মোঃ গোলাম ছামদানী।

শাকিল মোল্লা/কুমিল্লা