কুমিল্লায় শীতের পোশাক কিনতে ফুটপাতে ভিড়

পৌষ মাস আসতে এখনও কিছুদিন বাকী। কিন্তু ইতোমধ্যেই সন্ধ্যার পর কুয়াশার সাথে উত্তরের কনকনে হিমেল হাওয়া বইতে শুরু করেছে। অবস্থা সম্পন্নরা অভিজাত শপিং মল থেকে দামী সব শীতের পোশাক কিনলেও নিম্নবিত্তদের জন্য ফুটপাতের কম দামের পোষাকেই ভরসা করছে।

গত কিছুদিন ধরে কুমিল্লার ফুটপাত জুড়ে গরম পোশাক কিনতে ভীড় করছে নিম্ন আয়ের মানুষজন। আর ফেরীওয়ালা সুরে ছন্দে গরম কাপড় বিক্রি করছেন- চাইয়া লন দেড়শ’ বাইছা লন দেড়শ’।

এ ছাড়া কুমিল্লা মহানগরীর বিভিন্ন সড়কের ফুটপাতে ফেরীওয়ালাদের ভ্যান ঘিরে থাকতে দেখা যায় নিম্ন আয়ের মানুষজনকে। ফেরীওয়ালারা ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থান হতে কম দামের পোশাক কিনে আনে। এছাড়া কুমিল্লা ইপিজেড থেকেও কম দামে কাপড় কিনে এনে নগরীতে বিক্রি করে।

নগরীর রাজগঞ্জ-চকবাজার সড়কের পাশে একদল ফেরীওয়ালাকে নিয়ম করে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কম দামের গরম কাপড় বিক্রি করতে দেখা যায়।

গরম কাপড়ের অভাবে যেন শীতের সময় সন্তান কষ্ট না পান তাই স্বামীর দেয়া টাকা থেকে কিছু টাকা জমিয়ে রেখেছিলেন। এখন সেই টাকার সাথে আরো কিছু টাকা যোগ করে সন্তানদের জন্য ভারী পোশাক কিনেছেন বলে নিলুফার দেহমন জুড়ে একটা উষ্ণতা ছড়িয়ে গেল।