আছমার নানার বাড়ির উৎসুক জনতা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নের কান্দি গ্রামে গ্রামীণ খেলা কুতকুত খেলতে গিয়ে আছমা আকআতর (৮) নামের এক শিশু মারা গেছে।

ওই ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ তার সহপাঠী তাকে মারধোর করে। এতে সে আহত হয়।

আছমা মৃত মনির মিয়ার মেয়ে। সে তার নানার বাড়ী কাহেতুরা গ্রামে এক সহপাঠীর সাথে কুতকুত খেলছিলো।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নের কান্দি গ্রামের আছমা আক্তার (৮) পার্শ্ববর্তী কুন্ডা ইউনিয়নের কাহেতুরা গ্রামে নানার বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ২২ মে বুধবার সকাল ১১ টার দিকে সহপাঠী ফারুক মিয়ার মেয়ে সীমা আক্তার (৮) এর সাথে গ্রামীণ কুতকুত খেলে।

খেলার এক পর্যায়ে দুই জনের মধ্যে ঝগড়া হয়।

ওই সময় সীমা আক্তার  আছমা আক্তারকে চুলে ধরে টান দিলে মাটিতে পড়ে যায় এবং মাথায় ফুলা জখম হয়ে আঘাতপ্রাপ্ত হয়।

পরে আছমা আক্তারকে উদ্ধার করে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই দিন রাত অনুমান সাড়ে ১১ টায়আছমার মৃত্যু হয়। ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

মোঃ আব্দুল হান্নান/নাসিরনগর