আল-কায়েদার প্রধান আয়মান আল-জাওয়াহিরি। ছবি: ইন্টারনেট

ভারতীয় সেনাবাহিনী ও জম্মু-কাশ্মীরের সরকারের ওপর নির্মম হামলা চালাতে কাশ্মীরি মুজাহিদীনদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জঙ্গিগোষ্ঠী আল-কায়েদার প্রধান আয়মান আল-জাওয়াহিরি। ‘কাশ্মীরকে ভুলো না’ শিরোনামে এক ভিডিও বার্তায় তিনি এই আহ্বান জানিয়েছেন।

ভিডিওতে কাশ্মীর সীমান্তে সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে পাকিস্তানের সংশ্লিষ্টতার বিষয়েও কথা বলেছেন তিনি। আয়মান আল-জাওয়াহিরি বলেন, (আমি) চাই মুজাহিদীনের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে এই সময় ভারতীয় সেনা ও জম্মু ও কাশ্মীর সরকারকে অবিচ্ছিন্নভাবে আঘাত করতে; যাতে ভারতীয় অর্থনীতিতে ব্যাপক রক্তপাত এবং প্রাণহানি ও বিভিন্ন সরঞ্জামহানি-সহ ভারতকে স্থায়ী ক্ষতি ভোগ করতে হয়।

আল-কায়েদার প্রধান যখন এই হুমকি দেন, তখন ভিডিওতে তার ডানপাশে একটি অ্যাসল্ট রাইফেল এবং বামপাশে পবিত্র কোরআন দেখা যায়।

গত মে মাসে কাশ্মীরে ভারতীয় নিরাপত্তাবাহিনীর অভিযানে আল-কায়েদার ভারতীয় শাখা আনসার গাজওয়াত-উল-হিন্দের প্রধান জাকির মুসা নিহত হন। কাশ্মীর নিয়ে কথা বলার সময় ভিডিওতে জাকির মুসার ছবি দেখা গেলেও তার নাম উল্লেখ করেননি জাওয়াহিরি।

কাশ্মীরে নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর হামলা চালানোর জন্য এই গ্রুপের সদস্যদের প্রস্তুত করছে আল-কায়েদা। ভিডিওতে পাকিস্তান সেনাবাহিনী এবং সরকারকে যুক্তরাষ্ট্রের পা চাটা গোলাম বলে অভিহিত করেন আল-কায়েদার এই প্রধান। তিনি বলেন, পাকিস্তানের ফাঁদে যোদ্ধাদের পা দেয়া উচিত নয়।

জাওয়াহিরি বলেন, পাকিস্তানি সব সেনা ও সরকার বিশেষ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সাধনের জন্য মুজাহিদীনকে ব্যবহার করছে। পরে তাদের দমন কিংবা নিপীড়ন করেছে।

তিনি বলেছেন, সীমান্ত পাক-ভারত সংঘাত জিইয়ে রাখতে মার্কিন গোয়েন্দাবাহিনী কাজ করছে। তবে আল-কায়েদার এই ভিডিওতে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে কিছু বিশেষজ্ঞ মন্তব্য করেছেন। তারা বলেছেন, পাকিস্তান যে সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে না সেটি দেখানোর জন্য আল-কায়েদাকে দিয়ে এই ভিডিও প্রচার করছে ইসলামাবাদ।

জাওয়াহিরি আরো বলেন, কাশ্মীরের লড়াই পৃথক কোনো সংঘাত নয়, বিশ্বের বৃহৎ একটি বাহিনীর বিরুদ্ধে মুসলিম বিশ্বের জিহাদের অংশ এটি। তবে কাশ্মীরে মসজিদ, মার্কেট, মুসলিমদের জনসমাগম এলাকায় হামলা না চালানোর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আজকের পত্রিকা/এমইউ