গাজীপুরে কাশিমপুর সারদাগঞ্জ আয়নাল মার্কেট এলাকার নাফিউল ইসলাম নয়ন (২৪) নামে এক যুবক আশুলিয়ার বংশাই নদীতে নিখোঁজের সাতদিন পর তার লাশ উদ্ধার হয়েছে।

শুক্রবার সকাল ৬ টায় নলাম এলাকার কচুরী পানার মধ্য থেকে তার লাশ উদ্ধার করে এলাকাবাসী।

গত ১৭ আগষ্ট শনিবার আশুলিয়ার বংশাই নদীর (ধলাই বিল ) কন্ডা ব্রিজ এলাকায় গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হয় নাফিউল ইসলাম নয়ন।

নয়ন মিতালী ফ্যাশন লিঃ এইচ আর এডমিন অ্যান্ড সিএ আর বিভাগের ইনফরমেশন টেকনোলজি (আইটি) সেকশনে অফিসার পদে চাকুরী করতেন।

মিতালী ফ্যাশান লিঃ প্লানিং ইনচার্জ রাজু আহমেদ জানান, নয়ন প্রায় দেড় বছর যাবত এই ফ্যাক্টরিতে কর্মরত ছিলো। তিনি আরো বলেন,সে অত্যান্ত ভদ্র ছিলো তার এই অকাল মৃত্যু কিছুতেই মানতে পারছিনা। তার এই অকাল মৃত্যুে মিতালী গ্রুপে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

নিহতের বড় ভাই নাজমুল ইসলাম জানান,ঈদের পরে ১৭ আগষ্ট তারা ৮/১০ জন বন্ধু মিলে ঘুরতে বের হয়েছিলো। পরে আশুলিয়া বংশাই নদীতে সবাই মিলে গোসল করতে নামে। কিন্তু নয় সাতার জানতোনা।

তিনি আরো বলেন, তিন বন্ধু নদীর স্রোতে ভেসে যাচ্ছে দেখে নয়ন তাদের উদ্ধার করতে এগিয়ে গেলে পানির মধ্যে ডুবে যায়। এ সময় তীরে থাকা নৌকা নিয়ে সাঁতার জানা তিনজনকে জীবিত উদ্ধার করতে পারলেও নয়নকে উদ্ধার করতে পারেনি।

পরে ইপিজেড ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে ওই দিন রাত থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মী ও টঙ্গীর ডুবুরিরা উদ্ধার অভিযান চালান।
ইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার ওমর ফারুক জানান, নিখোঁজ হওয়ার সংবাদ পেয়ে শনিবার থেকে উদ্ধারকাজ পরিচালনা করছি। কিন্তু স্রোতের কারণে লাশটি কচুরিপানার নিচে পড়েছিল।

তাই ডুবুরিরা কচুরিপানার নিচে যেতে পারেননি। পরে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় কচুরিপানা পরিষ্কার করে শুক্রবার সকালে নিখোঁজ নয়নের লাশ উদ্ধার করা হয়।

শহীদুল ইসলাম/গাজীপুর