কারখানায় আগুন

গাজীপুর সিটি মেয়র এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, সিটি কর্পোরেশন এলাকার সকল কাখানায় আগুন নেভানোর পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আশা করি সকলেই আগুন নিয়ন্ত্রণের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

দুপুরে মিনিস্টার কারখানার অগ্নিকান্ডের পর পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের সাথে আলাপ কালে এ কথা জানান। তিনি জানান, বেশ কিছু কারখানায় সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে নোটিশের মাধ্যমে জানানো হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডের জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য । অনেকেই এ নির্দেশনা মানছেন না।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ধীরাশ্রম এলাকায় মাইওয়ানের মিনিস্টার ফ্রিজ তৈরির কারখানার আগুন সাড়ে ৬ ঘন্টা পরও নিয়ন্ত্রনে আসে । সকাল সোয়া ৭টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট ৬ ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ।

এ ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট শাহীনুল ইসলামকে প্রধান করে ৬ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

শুক্রবার সকাল সোয়া ৭টার দিকে গাজীপুর মহানগরের ধীরাশ্রম এলাকার ধীরাশ্রম এলাকায় মাইওয়ান কোম্পানীর মিনিষ্টার ফ্রিজ কারখানার ষষ্ঠ তলায় আগুন লাগে। খবর পেয়ে জয়দেবপুর ও টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিটের কর্মীরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে কাজ শুরু করে। পরে ঢাকা ও আশপাশের ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণের কাজে যোগ দেয়।

সংবাদ পেয়ে গাজীপুরের সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি শামসুন্নাহার, সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম ও জিএমপির কমিশনার আনোয়ার হোসেন।

এসময় সিটি মেয়র বলেন, সিটি কর্পোরেশন এলাকার সকল কারখানায় আগুন নেভানোর পর্যােপ্ত ব্যবস্থা রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে ।আশা করি সকলেই আগুন নিয়ন্ত্রণের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায়, গাজীপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রট শাহিনুর ইসলামকে প্রধান করে ছয় সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। ৭ কর্ম দিবসের মধ্যে এই কমিটি তাদের রিপোর্ট পেশ করবে।

ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের পরিচালক, অপারেশন অ্যান্ড মেনটেনেন্স দিলীপ কুমার ঘোষ জানান, ভবনটির ষষ্ঠ তলায় কারখানার গুদাম। সেখানে তৈরি ফ্রিজ, টেলিভিশন, রাইস কুকারসহ বিভিন্ন পণ্য মজুদ ছিল। সেখান থেকে আগুনে সুত্রপাত হয়। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে ৬ ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে । তবে আগুনে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানাতে পারেননি তিনি । তবে সাপ্তাহিক ছুটির দিন কারনে কারখানাটি বন্ধ ছিল।

-শহিদুল ইসলাম/গাজীপুর