কর্মক্ষেত্রে ছুটি নেবার প্রয়োজন হলে ব্রিটেনে প্রতি পাঁচ জনের মধ্যে দুইজন ভুয়া অসুস্থতার রিপোর্ট করে। নৈতিকতা এবং মূল্যবোধ নিয়ে তাদের যখন প্রশ্ন করা হয়, তখন তারা স্বীকার করেন যে অসুস্থতা কারণ দেখানো এবং অন্যদের কাজ নিজের অর্জন হিসেবে দেখানোর চেষ্টা করেন।

এসব কাজ সিনিয়রদের তুলনায় তরুণরাই বেশি করে। এছাড়া অন্য সহকর্মীদের সমর্থন দেবার ক্ষেত্রেও সিনিয়রদের চেয়ে তরুণরাই বেশি আগ্রহী। ব্রিটেনের জাতীয় পরিসংখ্যান অফিস বলছে, প্রতিবছর কর্মীরা গড়ে চারদিন অসুস্থতার ছুটি নেয়। কর্মক্ষেত্রে না যেতে তারা যেসব অসুস্থতার কথা বলে সেগুলো হচ্ছে – ঠাণ্ডা লাগা, পিঠে ব্যথা, মানসিক অবস্থা।

জরিপ সংস্থা কমরেস ব্রিটেন জুড়ে ১৬ বছরের ঊর্ধ্বে ৩৬৫৫ ব্যক্তির উপর এ জরিপ পরিচালনা করেছে। ব্রিটেনের লোকজন সত্য এবং মিথ্যা সম্পর্কে কী মনে করে – সে বিষয়টি উদঘাটনের জন্য বড় আকারে এই জরিপ করা হয়েছে। যারা অসুস্থতার ভান করে তারা অন্য সহকর্মীদের ক্ষেত্রেও সমর্থন দেয় যারা তাদের মতোই ভুয়া অসুস্থতার কথা বলে।

জরিপে দেখা গেছে, অসুস্থ না হওয়া সত্ত্বেও কেউ যদি অফিসে না আসে, সেটির জানার পরেও ৬৬ শতাংশ কর্মী বিষয়টি নিয়ে তাদের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে কিছু বলেন না। অন্যদিকে যাদের বয়স ৫৫ বছরের বেশি তাদের মধ্যে অর্ধেকেরও কম এ কাজ করেন।