কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতি না করতে শপথ করালেন ডিসি

ব্যতিক্রমী সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল। যোগদানের পর থেকেই সেবামূলক কর্মকাণ্ডে নিজেকে সরাসরি সম্পৃক্ত করেছেন। তার কর্ম তৎপরতায় জেলাজুড়ে ব্যস্ত সকল সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। এবার তিনি সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতি না করতে শপথ করালেন।

সাতক্ষীরা দীর্ঘদিনের সমস্যা প্রাণ সায়ের খালের অবৈধ দখল উচ্ছেদ, পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান, ডেঙ্গু বিরোধী অভিযান, সরকারি জায়গা থেকে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ, অসহায়দের পাশে থাকা, ভেজাল বিরোধী অভিযান, জলাবদ্ধতা দূরীকরণে জেলার সকল খালের ইজারা বাতিল, গণশুনানির মাধ্যমে সমস্যার তাৎক্ষনিক সমাধান আর তাৎক্ষণিক সমাধান না হলে সে বিষয়টি দ্রুত সমাধানের উদ্যোগ, গ্রিন সাতক্ষীরা ক্লিন সাতক্ষীরা ঘোষনাসহ নানা উদ্যোগ তিনি গ্রহন ও বাস্তাবায়নের জন্য কার্যকরি পদক্ষেপ নিয়েছেন।

রোববার বিকেলে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে রাজস্ব প্রশাসনের সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের দুর্নীতি না করার জন্য শপথ বাক্য পাঠ করিয়ে জেলা প্রশাসনকে দূর্ণীতিমুক্ত ঘোষনা করেছেন।

জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল বলেন, অফিসে এসে কেউ হয়রানি হবে না, কারো কাছ থেকে অবৈধ সুযোগ সুবিধা নেব না। আমাদের অফিস দুর্নীতিমুক্ত থাকবে। ভূমি নিয়ে যেখানে কাজ হয়, প্রতিটি জায়গায় মানুষ হয়রানি হয়, মানুষ যেন হয়রানি না হয়, সেই উদ্যোগ নিতে হবে। আইনে যা আছে তাই করতে হবে। কারো কাছ থেকে অবৈধ সুবিধা নিয়ে বেআইনি কাজ করা যাবে না। আমাদের উপর যে দায়িত্ব তা সঠিকভাবে পালন করতে হবে। আপনারা করছেন না তা বলবো না। কিন্তু ভূমি সেবা নিয়ে মানুষের মধ্যে ক্ষোভ আছে। এজন্য নিজের কাছে প্রশ্ন করুন। সব পেয়ে যাবেন।

তিনি বলেন, বেশির ভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারী দুর্নীতিতে জড়িত। অনেক জায়গায় প্রতিষ্ঠানিক দুর্নীতি আছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনী ইশতেহারে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছিলেন। অনেকে হয়তো ভাবেননি আগামী দিনগুলোতে কি হতে যাচ্ছে, আর দুর্নীতি নয়। ইউনিয়ন ভূমি অফিস, এসিল্যান্ড অফিস, ইউএনও অফিস ও জেলা প্রশাসন কোথাও দুর্নীতি থাকবে না। কারো বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠলে এবং তা প্রমাণিত হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রত্যেক অফিসে দুর্নীতিমুক্ত লেখা বোর্ড টানাতে হবে।

জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল আরও বলেন, দেশে আমরাই প্রথম বলতে চাই সাতক্ষীরায় ভূমি সেবায় কোন দুর্নীতি হয় না। আমরা দূর্ণীতিমুক্ত।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এমএম মাহমুদুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. বদিউজ্জামান ও আরডিসি দেওয়ান আকরামুল হক, সকল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ, এসিল্যান্ড, ইউনিয়ন উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তাসহ রাজস্ব প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

-বৈশাখী/সাতক্ষীরা