কমলগঞ্জে কবর থেকে লাশ উত্তোলন

মায়ের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আদালতের নির্দেশে দাফনের প্রায় ৫ মাস পর তরুণীর লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে।

লিজা আক্তার (২২) নামের ঐ তরুণী মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুরস্থ গুড নেইবারস বাংলাদেশ মৌলভীবাজার সিডিপির স্বেচ্ছাসেবী কর্মী ছিলেন।

রোববার (৮ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১১ টায় কমলগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাসরীন চৌধুরী, শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (তদন্ত) অরূপ কুমার চৌধুরী, কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার নাহিমা আক্তার ও কমলগঞ্জ থানার এসআই ফরিদ মিয়ার উপস্থিতিতে উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের পূর্ব আদকানী পারিবারিক কবরস্থান থেকে লিজা আক্তারের লাশ উত্তোলন করা হয়। কবর থেকে লাশটি তোলার পর ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা যায়, গত ২১ জুলাই বিকালে কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর-কোনাগাঁও সড়কে দ্রুতগতির চলন্ত মোটরসাইকেলের পিছন থেকে ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। পরে তাকে হাসপাতাল নেওয়ার পর মৃত্যুবরণ করেন।

সে সময় ময়নাতদন্ত ছাড়া লাশ দাফন সম্পন্ন হয়েছিল। কিন্তু সম্প্রতি লিজার মা আলেমা বেগম বাদী হয়ে গত ২৪ আগস্ট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৩নং আমল আদালত মৌলভীবাজার এ মামলা দায়ের করেন।

এ মামলার প্রেক্ষিতে আদালত লাশের ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে লাশ উত্তোলনের আদেশ দেন। মেয়ে লিজা আক্তার বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা গুড নেইবারস এর মৌলভীবাজার সিডিপির এসএস সার্পোটার হিসেবে কর্মরত থাকাকালীন সময়ে বিগত ২১ জুলাই প্রজেক্ট ম্যানেজার জন বৃগেন মল্লিক ও প্রোগ্রাম ইনচার্জ জীবন্ত হাগিদকসহ অন্যান্য সহকর্মীদের দায়িত্বহীনতা ও গাফিলতির কারণে নির্মমভাবে মৃত্যুবরণ করে বলে অভিযোগ করা হয়।