কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত

কক্সবাজারের সমুদ্র সৈকতে ভেসে এলো আরও পাঁচ জেলের মৃতদেহ। এ নিয়ে দুই দিনে ট্রলারডুবির ঘটনায় মৃতদেহ উদ্ধারের সংখ্যা ১১ জনে দাঁড়িয়েছে।

কক্সবাজর পুলিশ জানিয়েছে, ঝড়ের কবলে পড়ে মাছ ধরার ট্রলার ডুবে তাদের মৃত্যু হয়। তারা সুমদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে ঝড়ের কবলে পড়ে।

১১ জুলাই বৃহস্পতিবার রাত ৯টা থেকে ১০টার মধ্যে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের বিভিন্ন জায়গা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. ইকবাল হোছাইন জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে হিমছড়ি থেকে এক জন, মহেশখালীর হোয়ানক থেকে ১ জন, রাত ১০টার দিকে কক্সবাজারের সমিতি পাড়া থেকে ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে।

উদ্ধার হওয়া জেলেদের মধ্যে ৬ জনের পরিচয় মিলেছে। এরা হলেন- ভোলার চরফ্যাশনের পূর্ব মাদ্রাসা এলাকার তরিফ মাঝির ছেলে কামাল হোসেন (৩৫), চরফ্যাশনের উত্তর মাদ্রাসা এলাকার নুরু মাঝির ছেলে অলি উল্লাহ (৪০), একই এলাকার ফজু হাওলাদারের ছেলে অজি উল্লাহ (৩৫), মৃত আব্দুল হকের ছেলে মো. মাসুদ (৩৮), শহিদুল ইসলামের ছেলে বাবুল মিয়া (৩০) ও নজিব ইসলামের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম।

অপর ৫ জনের পরিচয় এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। পরিচয় শনাক্ত হওয়া ৬ জনকে স্বজনের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। পুলিশ জানিয়েছে, ট্রলারের মালিক ভোলার চরফ্যাশন এলাকার ওয়াজ উদ্দিন পিটার।

এ ঘটনায় ২ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। তারা এখনও কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আজকের পত্রিকা/এমএআরএস