ইয়াছিন মোহাম্মদ সিথুন : নীলফামারীর ডোমার থানা পুলিশের সহায়তায় মা ও বাবাকে একসাথে পেল ১২ দিন বয়সের একটি শিশু।

শুক্রবার রাত ১১ টার দিকে ডোমার থানার নারী, শিশু, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধি সার্ভিস ডেস্কে মেয়ে শিশুটিকে তার মা ও বাবার কোলে তুলে দেয় পুলিশ সদস্যরা।

শিশুটির বাবা উপজেলার হরিণচড়া ইউনিয়নের বালারডাঙ্গা এলাকার ওবিনাশ রায় (২৮) ও মা ভারতী রানী (২০)।

থানা সুত্রে জানা গেছে, গত ৪ আগষ্ট মঙ্গলবার দুপুরে পারিবারিক কলহে ভারতী রানী নিজের নয় দিন বয়সী মেয়ে শিশুটিকে শ্বশুর বাড়িতে রেখে অভিমান করে বাবার বাড়িতে চলে যায়।

মা ছাড়া এতো ছোট শিশুটিকে কোন ভাবেই সামতে পারছিল না ওবিনাশ, তার বড় স্ত্রী লিপি রানী, তার মা-বাবা। তাই বাধ্য হয়ে বৃহস্পতিবার গভির রাতে ওবিনাশ শিশুটিকে নিয়ে ডোমার থানায় এসে ওসি মোস্তাফিজার রহমানকে বিস্তারিত জানান।

পরদিন দুপুরে পুলিশ উপজেলার ডুগডুগি বড়গছা হতে ভারতী রানীকে না পেয়ে তার বাবা সুবোধ চন্দ্র ও মা নির্মলা রানীকে থানায় নিয়ে আসে।

এরপর সন্ধ্যায় ভারতী রানী ডোমার থানায় আসে। তাদের দুই পক্ষকে নিয়ে সমঝোতায় বসে ওসি মোস্তাফিজ।

তিন ঘন্টা দীর্ঘ্ আলোচনার পর তারা এক সাথে থাকতে সম্মত হয়। থানা থেকে ছোট শিশুটিকে কোলে নিয়ে বাড়ি ফিরে তারা।

ডোমার থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ মোস্তাফিজার রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দুই পক্ষকে নিয়ে আলোচনার পর শিশুটিকে তার মা-বাবা দুই জনের কোলেই তুলে দিয়েছি।

  • 1.3K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1.3K
    Shares