বাংলাদেশ হাইকোর্ট। ছবি : সংগৃহীত

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা (ওসি) সব জায়গায় রাতে কোর্ট বসায়, এত সাহস কোথায় পায় তারা? নিজেরা বিচার বসায় কেমন করে, কোন সাহসে? এমন মন্তব্য করেন হাইকোর্ট। ২ এপ্রিল মঙ্গলবার সাতক্ষীরার শ্যামনগর থানা মামলা না নেয়ার ঘটনায় দায়ের করা এক রিট আবেদনের শুনানিতে থানা পুলিশের দুর্নীতি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন হাইকোর্ট।

সাতক্ষীরার বাসিন্দা ফজলুল করিমের দায়ের করা রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের বেঞ্চে সকালে এ মামলার শুনানি শুরু হয়। আদালত শুনানির সময় বলেন, ‘অনেক পুলিশ কষ্ট করে দিনযাপন করেন, অথচ অনেকের দেখি ৪-৫টি বাড়ি। ১৩ হাজার পুলিশ যারা থানায় বসে, তাদের জন্য গোটা পুলিশ বিভাগের বদনাম হয়। তারা সুবিধা মতো মামলা নেয়, থানায় টাকা ছাড়া জিডিও হয় না। চোরের দেশ একটা।’

রিটকারীর আইনজীবী বলেন, ‘সাতক্ষীরার শ্যামনগরের সোরা গ্রামের বাসিন্দা ফজলুল করিমের বাড়িতে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি রাতে ভাঙচুর চালায় স্থানীয় কয়েকজন। এ ঘটনায় তিনি  ইউসুফ আলীসহ পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে শ্যামনগর থানার মামলা করতে গেলে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামলাটি না নিয়ে তা মীমাংসার প্রস্তাব দেন।’

পরে আদালত আবেদনটি এক সপ্তাহের জন্য মুলতবি করে রাখেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন শামসুল হক কাঞ্চন। এছাড়া রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সাইফুল আলম।

আজকের পত্রিকা/আ.স্ব/জেবি