বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে দলের যৌথসভার শুরুতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ছবি : সংগৃহীত

আওয়ামী লীগ ঐক্যফ্রন্টকে দায়িত্বশীল ও শক্তিশালী ভূমিকায় দেখতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ১১ জুন মঙ্গলবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে দলের যৌথসভার শুরুতে অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি একথা বলেন।

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে অনুষ্ঠিত যৌথ সভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টের ঐক্য অটুট থাক। শক্তিশালী দায়িত্বশীল বিরোধী দল গণতন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্য শুভ।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টে ঐক্য নেই। আমরা এটা চাই না। আমরা চাই দেশে একটা দায়িত্বশীল বিরোধী দল গড়ে উঠুক। কিন্তু ঐক্যফ্রন্টের রাজনীতি হচ্ছে বিরোধিতার জন্য বিরোধিতা করা।’ এ জোটটিকে গঠনমূলক রাজনীতি করার আহ্বান জানান তিনি।

খালেদা জিয়ার কারামুক্তি নিয়ে কোনও আন্তর্জাতিক চাপের কথা অস্বীকার করেন ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কোনও চাপ তো নেই। তবে  বিএনপি বারবার আন্তর্জাতিক মহলের কাছে ধর্ণা দিচ্ছে, নালিশ করছে‌।’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের উদ্বেগ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য খারাপ এটা চিকিৎসকরা বলছেন না। বিএনপি যদি তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে থাকে তাহলে ভিন্ন কথা। মির্জা ফখরুল বলেছেন। কিন্তু তিনি কি ডাক্তার? মূলত বিএনপি খালেদার চিকিৎসা নিয়ে রাজনীতি করছে।’

মাসব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, ২৩ জুন রোববার সূর্যোদয়কালে কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও সারাদেশের সব কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন। একই দিন সকাল ৯টায় জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন। বেলুন ও পায়রা অবমুক্ত। একইসঙ্গে বঙ্গবন্ধু ভবনে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন।

সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে টুঙ্গীপাড়ায় কেন্দ্রীয় সংসদের পক্ষ থেকে জাতির জনকের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন। ২৪ জুন সোমবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা সভা ও তৃণমূলের প্রবীণ নেতাদের সম্মাননা দেওয়া।

২৫ জুন মঙ্গলবার দলীয় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। পরবর্তীতে হাতিরঝিল ও রবীন্দ্র সরোবরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এছাড়াও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণিকা, ক্রোড়পত্র এবং পোস্টার প্রকাশ। রাজধানীতে সীমিত আকারে সাজসজ্জা।

কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের পাশাপাশি সারাদেশের জেলা, উপজেলা, মহানগরে সভা সমাবেশ সেমিনার, র‌্যালি, স্মরণিকা প্রকাশ এবং রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হবে।

আগামী ২৩ জুন দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণিকা প্রকাশ, রচনা প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং হালকা আলোকসজ্জার ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এছাড়া প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দুজন প্রবীণ নেতাকে সংবর্ধনা দেওয়ার যে উদ্যোগ ছিল, তা মুজিববর্ষে করা হবে বলেও তিনি জানান।

যৌথসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বি এম মোজাম্মেল হক, দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, এনামুল হক শামীম, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল,  দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, দলের আইন বিষয়ক সম্পাদক এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম আতিক, দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনসহ ঢাকার দলের জাতীয় সংসদ সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণে নেতৃবৃন্দ।

আজকের পত্রিকা/রাজনীতি/আ.স্ব