সন্তানদের নিয়ে স্বামী স্ত্রী।

যশোরের নাভারণের শ্যামলাগাছি গ্রামের সুমন বিশ্বাসের স্ত্রী আরিফা সুলতানা প্রথম বাচ্চা প্রসবের ২৬ দিন পর পুনরায় আরোও দুটি বাচ্চা প্রসব করেছেন। এ ঘটনায় ওই এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

আরিফা সুলতানার ইতির পরিবার জানায়, তার গর্ভ থেকে সাড়ে ৬ মাস বয়সে জন্ম নেই প্রথম শিশু। এর ২৬ দিন পর প্রায় সাড়ে সাত মাস বয়সে জন্ম নেয় আরও দুটি শিশু। এর মধ্যে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফেব্রুয়ারির ২৫ তারিখে জন্ম নেয় একটি ছেলে শিশু। ২৬ দিন পর যশোর আদ্ব-দ্বিন হাসপাতালে পুনরায় জন্ম নেয় আরও দুটি শিশু। যার একটি ছেলে ও একটি মেয়ে।

যশোর আদ্ব-দ্বিন হাসপাতালের গাইনী চিকিৎসক শীলা পোদ্দার বলেন, আমি এই প্রথম এ ধরনের একটি কেচ দেখলাম, যা বিগত দিনে আমি কখনো শুনি নাই এবং দেখিও নাই। প্রথমে যখন নিয়ে আসা হয় তখন আমরা বুঝতে পারিনি বিষয়টা কী। পরে অপারেশনের শেষ পর্যায়ে আমরা বুঝতে পারলাম উনার জরায়ু দুটো। যার একটিতে ছেলে সন্তান এবং অপরটিতে দুটি সন্তান ছিল (একটি ছেলে ও একটি মেয়ে)। প্রথমে যে জরায়ুতে একটি বাচ্চা ছিল সেটি আগে ডেলিভারি হয়। পরে আমাদের কাছে আনলে তার আরও দুটি বাচ্চা ডেলিভারি হয়।

ইতির স্বামী সুমন বিশ্বাস জানান, তার স্ত্রী অসুস্থ্য হলে তাকে যশোর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। প্রায় ঘণ্টা খানেক পর বলা হয় তাকে খুলনা মেডিকেলে নিয়ে যেতে।

সেখানে নিয়ে গেলে আমার প্রথম বাচ্চা হয়। পরে ২৬দিন পর আবার অসুস্থ্য হলে তাকে যশোর আদ্ব-দ্বিন হাসপাতালে নিয়ে আসি। সেখানে পুনরায় আরোও দুটি বাচ্চা হয়।

ইয়ানূর রহমান/যশোর