৪০ টির বেশি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির জন্য চূড়ান্ত হয়েছে শাকিব-ববির 'নোলক'। ছবি : সংগৃহীত

আসন্ন ঈদের বহুল প্রতীক্ষিত বাংলা সিনেমা হচ্ছে ‘নোলক’। সিনেমাটি মুক্তির পূর্বপ্রস্তুতি চলছে এখন। শুরু হয়ে গেছে হল বুকিং দেয়ার কাজ। ‘নোলক’-এর প্রযোজক ও পরিচালক সাকিব সনেট গণমাধ্যমকে জানান, ইতোমধ্যে ৪০ টির বেশি প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি চূড়ান্ত হয়ে গেছে।

প্রযোজক ও পরিচালক সনেট বলেন, ‘নোলক’ সিনেমাটি প্রথম সপ্তাহে ৬০ টির বেশি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির টার্গেট রয়েছে। এরই মধ্যে ৪০ টির বেশি হলে বুকিং হয়ে গেছে। তবে চাইছি, প্রথম সপ্তাহে ৬০ টির বেশি হলে মুক্তি পাক ‘নোলক’।

তিনি আরও বলেন, বেছে বেছে ভালো ভালো সিনেমা হল গুলোতে ‘নোলক’ মুক্তি দিচ্ছি। ছবির মান ভালো। আমার বিশ্বাস, দর্শক ছবিটি গ্রহণ করবেই। সেজন্য প্রথমে কম সংখ্যক হলে মুক্তি দিলেও কোনো আফসোস থাকছে না। দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে হল সংখ্যা বাড়াতে চাই। সেভাবে গোছাচ্ছি।

এদিকে পরিচালক ও প্রযোজকের রেষারেষির কারণে নোলকের মুক্তি নিয়ে ধোঁয়াশার কথা শোনা গেলেও সাকিব সনেট বিষয়ে মোটেও কর্ণপাত করতে চাচ্ছেন না। তার মতে, সেন্সর যেহেতু হয়ে গেছে তাই মুক্তিতে আর বাঁধা নেই।

জানা যায়, ২৯ মে বুধবার কোর্টের রায়ের উপরই নির্ভর করছে নোলকের সেন্সর স্থগিতের বিষয়টি। তবে সাকিব সনেটের দাবি, এগুলো বিভ্রান্তি ছড়ানো ছাড়া কিছুই না। এসবে কিছুই হবে না। নোলক ঈদেই আসবে।

‘নোলক’ সিনেমার একটি দৃশ্য। ছবি : সংগৃহীত

সম্প্রতি নোলক ছবির দ্বিতীয় গান ‘জলে ভাসা ফুল’ প্রকাশ হয়েছে। হৃদয় খানের গাওয়া এ গানে ছবির নায়ক শাকিব খান ও ববি দুজকেই দেখা যাবে বেশ রোম্যান্টিক ও অন্তরঙ্গ দৃশ্যে দেখা যাবে। ববির ইউটিউব চ্যানেল ববস্টারে গানটি প্রকাশের পর দর্শক বেশ প্রশংসা করছেন। পরিচালক ও প্রযোজক সাকিব সনেট বলেন, আগামীতে ফাইনাল ট্রেলার প্রকাশ করবো। বাকি দুটো গান দর্শকদের হলে গিয়ে উপভোগ করতে হবে।

নোলকের ছবির কাহিনী, সংলাপ ও চিত্রনাট্য করেছেন ফেরারি ফরহাদ। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরের ১ তারিখ থেকে রামুজি ফিল্ম সিটিতে ছবির শুটিং শুরু হয়। শাকিব-ববি ছাড়াও ‘নোলক’ ছবিতে অভিনয় করছেন ওমর সানি, মৌসুমি, শহিদুল আলম সাচ্চু, রেবেকা, রজতাভ দত্ত, অনুভব মাহাবুব প্রমুখ।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/আ.স্ব