কমলাপুর রেলস্টেশনে ব্রিফিং করছেন র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল এমরানুল হাসান। ছবি: সংগৃহীত

ঈদকে আনন্দঘন ও নিরাপদ করার জন্য র‌্যাব সবসময়ই কাজ করে। এবারো ঈদুল ফিতর উপলক্ষে কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে মানুষের গ্রামের বাড়ি যাওয়া এবং শহরে নিরাপদে ফিরে আসা নিশ্চিত করার জন্য তৎপরতার কথা জানিয়েছেন র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক (সিও) লেফটেন্যান্ট কর্নেল এমরানুল হাসান।

২৬ মে রবিবার দুপুরে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে ঈদ উপলক্ষে গৃহীত নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

সিও আরো বলেন, আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে মানুষের ঘরে ফেরা আনন্দঘন ও নিরাপদ করতে সর্বাত্মক ব্যবস্থা নিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। ঈদ উদযাপন শেষে মানুষের ঢাকায় ফিরে আসা পর্যন্ত এ ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে। ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি এবং টিকিট বিক্রির সময় বিড়ম্বনা এড়াতে র‌্যাব-৩ সর্বদা তৎপর থাকছে।

রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে র‌্যাবের নিবিড় যোগাযোগ আছে জানিয়ে এমরানুল হাসান বলেন, কমলাপুরে আমাদের ২৪ ঘণ্টার কন্ট্রোল রুম রয়েছে। টিকিট কালোবাজারির তথ্য আমাদের জানালে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো। তাছাড়া কোনো অনিয়ম হচ্ছে কি’না, এই বিষয়েও আমদের নজরদারিতে থাকছে।

তিনি আরো বলেন, শুধু তাই নয়, ঈদের সময় যেসব শপিং মলগুলোতে কেনাকাটা হয় এবং যেসব স্থানে মানুষের সমাগম হয়, অর্থাৎ ব্যাংক থেকে শুরু করে সমস্ত জায়গায় আমরা নিরাপত্তা ব্যবস্থা রেখেছি। এসব জায়গায় আসা-যাওয়ার মধ্যে যেনো কোনো ধরনের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে না পারে এবং কোনো প্রকার দুর্ঘটনা ঘটতে না পারে, সেজন্য র‌্যাব ফোর্সের পক্ষ থেকে র‌্যাব-৩ সর্বাত্মক ব্যবস্থা নিয়েছে। গোয়েন্দা নজরদারি থেকে শুরু করে পেট্রোল, চেকপোস্ট অব্যাহত থাকছে।

আজকের পত্রিকা/কেএফ