সিফাত বিনতে ওয়াহিদ
সিনিয়র সাব-এডিটর

আব্দুর রহমান বদি। ছবি: সংগৃহীত

আব্দুর রহমান বদি শুধু টেকনাফ-উখিয়া নয়, সমগ্র বাংলাদেশেই একটি আলোচিত-সমালোচিত নাম। দুই মেয়াদে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পরও ইয়াবা ব্যবসায়ের সঙ্গে তার নাম সম্পৃক্ত থাকার কারণে একাদশ সংসদ নির্বাচনে দলের কক্সবাজার-৪ আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন পাননি বলেই ধারণা রাজনৈতিক মহলের। যদিও এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছে তার প্রথম স্ত্রী শাহীন আক্তার চৌধুরী।

ইয়াবা ব্যবসায়ীদের মদদ দেওয়াসহ নানা কারণে বিতর্কিত এই সাবেক সদস্য আবারও আলোচনা এলেন। এবারের প্রেক্ষাপট ভিন্ন। মরণঘাতী নেশাদ্রব্য ইয়াবার ব্যবসার সঙ্গে নাম জড়িয়ে থাকা বদি এবার হুঁশিয়ার করলেন ইয়াবা ব্যবসায়ীদের।

১১ জানুয়ারি শুক্রবার টেকনাফের লামাবাজারের নিজ বাড়িতে সদ্য নির্বাচিত সংসদ সদস্য এবং তার স্ত্রী শাহীন আক্তার চৌধুরীকে সঙ্গে নিয়ে এক মতবিনিময় সভাতে আগামী পাঁচদিনের মধ্যে কক্সবাজারের টেকনাফ-উখিয়ার ইয়াবা কারবারিদের আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। পাঁচদিনের মধ্যে তার সঙ্গে যোগাযোগ করে আত্মসমর্পণ না করলে পরিণাম ভয়াবহ হবে বলেও তিনি সতর্ক করে দিয়েছেন সবাইকে।

বদি ছাড়াও মতবিনিময় সভাতে তার স্ত্রী ও বর্তমান সাংসদ শাহীন আক্তারও হুঁশিয়ারি জানিয়ে বলেছেন, ‘যে সকল ইয়াবা ব্যবসায়ীরা আত্মসমর্পণ করবে না, তাদেরকে দেশ ছাড়তে হবে।’ এছাড়া কোনো ইয়াবা ব্যবসায়ী বা ইয়াবা ব্যবসায়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি টেকনাফ-উখিয়া এলাকায় থাকতে পারবেন না বলেও জানিয়েছেন তিনি।