ইনফিনিটি ও বাটার লোগো। ছবি: সংগৃহীত

নামি দামি ব্রান্ডের মধ্যে জুতার জগতে ‘বাটা’ ও মেগামল ‘ইনফিনিটি’ উল্লেখযোগ্য। কিন্তু এই প্রতিষ্ঠান দুটি বিদেশি পণ্য বিক্রি করছে অথচ আমদানিকারকের স্টিকার নেই। এমন অপরাধে প্রতিষ্ঠান দুটিকে জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

২৫ মে শনিবার রাজধানীর মোহাম্মদপুরের তাজমহল রোড ও কৃষি মার্কেট এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক (ডিডি) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (এডি) ফাহমিনা আক্তার এবং মাগফুর রহমান।

এ বিষয়ে মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, বাটা ও ইনফিনিটি নামিদামি প্রতিষ্ঠান। এসব প্রতিষ্ঠানের ওপর মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস জড়িত। কিন্তু তারা বিদেশি পণ্য বিক্রি করছে অথচ আমদানিকারকের স্টিকার নেই। এটি ভোক্তা আইন পরিপন্থী, যা আইন অনুযায়ী দণ্ডনীয়। এ অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ এর ৪৫ ধারা অনুযায়ী বাটা ও ইনফিনিটি প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

এ ছাড়া একই এলাকায় বিক্রমপুর মিষ্টান্ন ভাণ্ডারকে ৫০ হাজার টাকা, কিডস কর্নারকে ১০ হাজার, ইভা সুপার শপকে ১৫ হাজার, মেসার্স জহির জেনারেল স্টোরকে ৫ হাজার, মুন্না মৎস্য ভাণ্ডারকে ২ হাজার, হক বেকারিকে ১০ হাজার, সিপি ফাইভ স্টারকে ২০ হাজার, মিলন জেনারেল স্টোরকে ৫ হাজার, সুপতি জেনারেল স্টোরকে ৫০ হাজার ও অরেঞ্জকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্ক করা হয়েছে। পরবর্তীতে এ ধরনের অপরাধ করলে আইন অনুযায়ী তাদের দ্বিগুণ জরিমানাসহ সিলগালা করে দেয়া হবে। অভিযানের সার্বিক সহযোগিতা করে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ।

আজকের পত্রিকা/কেএফ/জেবি