যমুনায় নিখোঁজ যুবককে উদ্ধারে অভিযান।

মানিকগঞ্জের শিবালয়ের আরিচা যমুনা নদীতে দু’টি স্পীড বোটের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোঃ আজগর আলী (২৫) নামের একজন দুই দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে। একদিন পর পুলিশ বিষয়টি স্বীকার করলেও শুরু থেকেই ঘটনা আড়াল করার চেস্টা করছে স্পীড বোট মালিক সমিতি’র লোকজন।

মঙ্গলবার নিখোঁজ স্বজনদের অনুরোধে সকাল থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত উদ্ধার তৎপরতা চালিয়েছে শিবালয় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল।এদিকে স্পীড বোট মালিক সমিতির নেতারা বরাবরের মতই নিখোঁজের বিষয়টি অস্বীকার করছেন।

নিখোঁজ আজগর গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা এলাকার আলী আশরাফের ছেলে। তিনি একটি প্রাইভেট কোম্পানির সিনিয়ার টেকনিশিয়ান হিসেবে চাকুরি করতেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, আরিচা-কাজীরহাট নৌ-রুটে শিবালয়ের অদুরে যমুনায় সোমবার সন্ধায় দুইটি যাত্রীবাহী স্পীড বোট মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় যাত্রী বোঝাই স্পীড বোট দুইটি ডুবে যায়। খবর পেয়ে আশেপাশের লোকজন ট্রলারযোগে কাজ করেন । এসময় আজগর আলী নামের একজন নিখোঁজ থাকে। বিষয়টি তাৎক্ষণিক সাংবাদিকদের কাছে আড়াল করে যায় স্পীড বোট মালিক সমিতি। পরের দিন মঙ্গলবার নিখোঁজ ব্যক্তির আত্মীয়-স্বজনরা শিবালয় ফায়ার সার্ভিসকে অনুরোধ করে নদীতে উদ্ধার তৎপরতা চালান। কিন্ত সন্ধ্যা পর্যন্ত উদ্ধার কাজ চালিয়েও নিখোঁজ আজগর আলীর কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

দুর্ঘটনায় স্পীড বোটে থাকা যাত্রী মিরাজ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, অন্য সব যাত্রীদের সাথে আমার সহকর্মী আজগরসহ কাজীরহাট থেকে স্পীড বোটযোগে আরিচা ঘাটে আসতেছিলাম। যাত্রী বোঝাই বোটটি কিছুদুর চলার পর আরিচার অদুরে অপরদিক থেকে আসা আরেকটি বোটের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় বোট দু’টি যমুনায় তলিয়ে যায়। পরে ট্রলারযোগে আসপাশের লোকজন এসে ডুবে যাওয়া স্পীড বোটের যাত্রীদেরকে উদ্ধার করে পারে নিয়ে আসে।

শিবালয় ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সাব-অফিসার মো. সবজাল হোসেন জানান, স্পীড বোট ডুবে যাওয়ার ঘটনাটি আমাদেরকে কেউ জানায়নি। পরের দিন নিখোঁজের স্বজনরা আসলে তাদের মাধ্যমে জানতে পারি। এরপর মঙ্গলবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সারা দিন উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করা হয়। কিন্ত নদীতে স্রোত ও পারিপাশ্বিক অবস্থা বিবেচনা করে নিখোঁজ ব্যাক্তির স্বজনদের সাথে আলোচনা করে অভিযান সমাপ্ত করা হয়।

শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোঃ মিজানুর রহমান নিখোঁজের বিষয়টি নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের বলেন, দুর্ঘটনার বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। নিখোঁজ আজগরের আত্মীয়-স্বজনদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

শাহজাহান বিশ্বাস, মানিকগঞ্জ। ০১৭১১৭৩৩৬৫১।