পার্থিব জগতের বাইরে এসে এ এক অন্য আবেদন। ছবি : ডেইলি স্টার

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত সম্পন্ন হয়েছে। ১৯ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার ভারতীয় মাওলানা জিয়াউল হকের বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় তাবলীগ জামাত অনুসারীদের কার্যক্রম। সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) ভোরে ফজরের নামাজের পর শুরু হয় এবারের বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিনের কার্যক্রম।

সকাল থেকে বয়ান শুরু করেন তাবলীগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বী ভারতের মাওলানা মোরসালিন। তরজমা করেন বাংলাদেশের আব্দুল্লাহ মুনসুরী। দ্বিতীয় পর্বে অংশ নিতে ইজতেমা ময়দানে লাখো মুসল্লি এসে অবস্থান নিয়েছেন। মুসুল্লিদের নিরাপত্তায় নেওয়া হয়েছে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা।

ইতোমধ্যে বিশ্ব ইজতেমায় ১৬টি দেশের ১৬৬ জন বিদেশি মেহমান যোগ দিয়েছেন। তবে তাবলীগ জামায়াতের তারিখ পরিবর্তন ও দুটি গ্রুপে বিভক্তির কারণে অনেক বিদেশি নাগরিক এবারের ইজতেমায় যোগ দিতে পারেননি বলে জানিয়েছেন ইজতেমার শীর্ষ মুরুব্বীরা।

প্রথম পর্ব শেষ হওয়ার একদিনের মাথায়ই শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। বিশ্ব ইজতেমার আয়োজক সূত্রে জানানো হয়, এটি ৫৪তম বিশ্ব ইজতেমা।
উল্লেখ্য, ১৯৬৭ সাল থেকে গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। মাঠে মুসল্লিদের স্থান সংকুলান না হওয়ায় ২০১১ সাল থেকে টঙ্গীতে দুই পর্বে বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম বছর যারা (যে ৩২ জেলার মুসল্লি) টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিতেন তারা পরবর্তী বছর সেখানে যেতেন না। ২০১৫ সাল থেকে প্রতিবছর টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমার পাশাপাশি জেলায় জেলায় আঞ্চলিক ইজতেমা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।