আব্দুল্লাহ আল মুক্তাদিরের তিনটি কবিতা। ছবি: আজকের পত্রিকা

১.

তোমার চোখে উপচে পড়ে ঘুমের নদী
তুমি তাই ক্লান্ত থাকো খুব
তোমার ঘরেজানলা ঘিরে
শব্দ-ঝড়ের বাতাস বয়ে যায়
তুমি দিনের উপর ঢলে পড়ো রাতের আকাশ নিয়ে
তোমার ভাষা
সুরে উদাস এমন এস্রাজ
সকাল সন্ধ্যা বাজতে গিয়ে
আমার কানের প্রাণে গলে পড়ে
বরফ শীতল মোমের বাতি
তোমার চোখে উপচে পড়ে ঘুমের নদী
তুমি তাই ক্লান্ত থাকো খুব
আমার অবুঝ
মাতাল সবুজ
পাতার মনে অচিন মেঘের আগুন
তোমায় অজান্তেই আজ দগ্ধ করি বৃষ্টি হয়ে ঝরতে গিয়ে

২.

ঢেউ না ওঠা প্রবল তোমার স্রোতে
আমি ঝড় তুলে যাই নিশ্চুপ উত্তাল
তোমার মনের ভিতর মন না থাকা প্রেমে
আমি শুকনো জলে ভিজে যাওয়া মাতাল
তুমি নেশায় ভেসে ডুব দেওয়া মৌসুম
আমার রাত্রি জেগে ঘুমায় তোমার ঘুম

৩.

তোমায় একা রাখতে গিয়ে
আমার যতো একলা লাগে
তার চেয়ে বেশি চোখের কোণে
গোপন গহীন অভিমানে
একলা তোমায় হাঁটতে দেখি
শূণ্য তোমার হাতের উপর
একলা বাতাস ভাসতে দেখি
আমার এমন উদাস করা সন্ধ্যা নামে
তোমায় একা ভাবতে দিয়ে
শহর দূরে ডুবতে দিয়ে
ভীষণ রঙিন পাগল করা অন্ধকারে
তোমায় একা ভুলতে দিয়ে
আমার এমন মনে পড়ে
জীবন থেকে জীবন জুড়ে
তোমার গন্ধে একলা করা
হাজার হাজার হাসনা হেনা একলা ফুটে রয়

আজকের পত্রিকা/সিফাত