বক্তব্য রাখেন আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মোঃ মতিয়ার রহমান।

বরগুনার আমতলী পৌরসভার টোল ও সড়কে সকল চাঁদা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মো. মতিয়ার রহমান।

২১ মার্চ বৃহস্পতিবার সকালে আমতলী নতুন বাজার চৌরাস্তা চত্বরে সভা করে এ ঘোষণা দেন।

বরগুনা জেলা যান্ত্রিকযান থ্রি-হুইলার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জহিরুল ইসলাম খোকন মৃধার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান।

বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোতাহার উদ্দিন মৃধা, পৌর কাউন্সিলর মঞ্জুরুল ইসলাম সেলিম পঞ্চায়েত, আবুল বাশার রুমী, কালু মিয়া, মোয়াজ্জেম হোসেন ফরহাদ, রিয়াজ উদ্দিন মৃধা, সামসুল হক চৌকিদার ও হাবিবুর রহমান মীর প্রমুখ।

প্রধান অতিথি মেয়র মতিয়ার রহমান তার বক্তব্যে বলেন, ২১ মার্চ বৃহস্পতিবার থেকে পৌর শহরে সড়কের সকল টোল আদায়, বিভিন্ন ইউনিয়ন ও সমিতির নামে চাঁদা উঠানো বন্ধ ঘোষণা করা হলো। আমতলী উপজেলার কোথাও কোনো প্রকার চাঁদাবাজি করতে দেয়া হবে না।

এ ঘোষণা অমান্য করে কেউ যদি টোল ও চাঁদা আদায় করলে তাকে পুলিশে দেয়া হবে। উল্লেখ্য পৌর শহরের চৌরাস্তা, বটতলা, একে স্কুল চৌরাস্তা, স্লুইজগেট, ফায়ার সার্ভিস এলাকায় প্রতিদিন পৌর টোল, ও বিভিন্ন শ্রমিক ইউনিয়নের নামে দীর্ঘদিন ধরে চাঁদা আদায় করা হতো। আমতলী পৌর পরিষদের প্রথম সভা বরগুনা প্রতিনিধি। বরগুনার আমতলী পৌরসভায় বৃহস্পতিবার নব নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আমতলী পৌরসভা মিলনায়তনে নব নির্বাচিত মেয়র উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মতিয়ার রহমান সভায় সভাপতিত্ব করেন। প্রশাসনিক কর্মকর্তা মামুনুর রশীদের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন কাউন্সিলর জিএম মুছা, মঞ্জুরুল ইসলাম সেলিম পঞ্চায়েত, জাহিদুল ইসলাম জুয়েল তালুকদার, আবুল বাশার রুমী, রিয়াজ উদ্দিন মৃধা, মোয়াজ্জেম হোসেন ফরহাদ, কালু মিয়া, সামসুল হক, হাবিবুর রহমান মীর, মহিলা কাউন্সিলর ফরিদা ইয়াসমিন, লিপি বিশ্বাস, মাকসুদা বেগম, নির্বাহী প্রকৌশলী তরুন কুমার ভক্ত, হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন, কর আদায়কারী সিদ্দিকুর রহমান স্বপন প্রমুখ।

এ সময় পৌরসভায় কর্মরত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত থেকে নব-নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়।

পৌর মেয়র মো. মতিয়ার রহমান তার বক্তব্যে আধুনিক পৌর শহর গড়তে, নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে ও পৌরসভার উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

মিজানুর রহমান, বরগুনা/জেবি