হাইভোল্টেজ ম্যাচে আজ দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারতের মুখোমুখি হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। জয় দিয়ে আসর শুরু করা দু’দলের লক্ষ্য সে ধারা অব্যাহত রাখা।

তাইতো ম্যাচের আগেই জমে উঠেছে দুই অধিনায়কের কথার লড়াই। লন্ডনের কেনিংটন ওভালে দু’দলের দ্বৈরথ মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে তিনটায়।

আবারো বিশ্বমঞ্চে মুখোমুখি দুই দল। আবারো মাঠের লড়াইয়ের আগেই ছড়াচ্ছে উত্তাপ। ২০১৫ সালের সেমিতে এই অজিদের কাছেই ধরাশায়ী হয়েই ভেঙ্গেছিলো ভারতের বিশ্বকাপ ধরে রাখার স্বপ্ন।
সিডনির সেই দগদগে ঘা এখনও শূলের মতো বিধে আছে ভারতীয়দের মনে। এবার সেই ক্ষতে কিছুটা হলেও প্রলেপ দেয়ার সুযোগ।
তবে কাজটা মোটেও যে সহজ নয় তা মনে করিয়ে দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার সাম্প্রতিক ফর্ম। বিশেষ করে মার্চের পর ওয়ানডে ফরমেট খেলা ১০টি ম্যাচের সবগুলেতে জিতেছে তারা। আর এই সময়ে ভারতকে অজিতরা হারিয়েছে তিন বার।
পরিসংখ্যানেও এগিয়ে অজিরা।
এ পর্যন্ত দু’দলের খেলা ১৩৬ ম্যাচের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার ৭৭ জয়ের বিপরীতে ভারত জিতেছে ৪৯ ম্যাচ। এমনকি বিশ্বকাপ কিংবা ইংল্যান্ডের মাটি। সবখানেই ফিঞ্চ বাহিনীর জয়জয়াকার। তার ওপর এবারের বিশ্বকাপের প্রথম দুই ম্যাচেই অজিরা পেয়েছে দাপুটে জয়। তাইতো এ ম্যাচেও দেখা যেতে পারে অপরিবর্তিত স্কোয়াড।
অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ বলেন, আপনি যখন বুমরাহ, শামি, হার্দিক কিংবা চাহালের দিকে তাকাবেন তখন আপনাকে ঠিকই বুঝবেন ব্যাটিংয়ের মতো ওদের বোলিং লাইনআপ ঠিক কতটা শক্তিশালী। তবে মজার ব্যাপার হলো আমরা জানি ওদের কিভাবে খেলতে হবে।
সম্প্রতি ভারতকে হারানোর অভিজ্ঞতা আমাদের আছে। ওরা শক্তিশালী দল হলেও জয়ের ব্যাপারে আমরা আশাবাদী।
তবে এসবে নয় টিম ইন্ডিয়া আলোচনায় মাহেন্দ্র সিং ধনি ইস্যুতে। কিপিং গ্ল্যাভস থেকে সেনাবাহিনীর ব্যাচ সরানো নিয়ে আইসিসির সঙ্গে মন কষাকষি চলছে বিসিসিআই’য়ের।
কেনিংটনে ম্যাচের আগের দিন এক পশলা বৃষ্টি শেষে ঘন্টা দুয়েক অনুশীলন করেছেন কোহলি-ধাওয়ান-রোহিত’রা। এখানকার ব্যাটিং স্বর্গে মূল দায়িত্বটা যে নিতে হবে এই তিন ত্রয়ী’কেই।
ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দল অধিনায়ক বিরাট কোহলি বলেন, ওরা খুবই পেশাদার দল। বিশেষ করে স্টিভ-ওয়ার্নার যোগ দেয়ার পর অস্ট্রেলিয়াকে হারানোটা মোটেও সহজ নয়। তবে দলের সবাই ছন্দে আছে যা ইতিবাচক।
এ ম্যাচেও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচের অপরাজিত একাদশ নিয়েই মাঠে নামতে পারে টিম ইন্ডিয়া। তবে রদবদল হতে পারে দলটির ব্যাটিং অর্ডারে। ৪ নম্বরে দেখা যেতে পারে মাহেন্দ্র সিং ধনিকে।
 শায়েল/আজকের পত্রিকা